Covaxin: করোনার ভারতীয় ও ব্রিটিশ স্ট্রেনের উপর কার্যকরী কোভ্যাক্সিন, আশার আলো দেখাচ্ছে ভারত বায়োটেক

করোনার ভারতীয় ও ব্রিটিশ স্ট্রেনের উপর কার্যকরী কোভ্যাক্সিন!

কয়েকদিন আগে এক রিপোর্টে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও (WHO) দাবি করেছিল ফাইজার ও মডার্নার মতো টিকাও এই দুই স্ট্রেনের উপর প্রভাব ফেলতে অক্ষম। এই আবহে আশার আলো দেখাচ্ছে ভারত বায়োটেকের তৈরি কোভ্যাক্সিন (Covaxin)।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: দেশজুড়ে করোনাভাইরাসের (Coronavirus) ভয়াল থাবা। প্রতিদিনই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। এই পরিস্থিতিতে টিকাকরণ (Corona Vaccination) ও করোনার বিধি মেনে চলার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক থেকে দেশের সরকার। তারই মধ্যে নতুন করে চিন্তা বাড়িয়ে তুলছে করোনার (Covid-19) নয়া স্ট্রেনগুলি।

    বিশ্বজুড়ে আতঙ্ক বাড়িয়েছে করোনার ভারতীয় ও ব্রিটিশ স্ট্রেন। এর অন্যতম কারণ, অনেক বিশেষজ্ঞই দাবি করেছেন যে, ভারত ও ব্রিটিশ করোনা স্ট্রেনের উপর করোনা টিকা কার্যকরী নয়। কয়েকদিন আগে এক রিপোর্টে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও (WHO) দাবি করেছিল ফাইজার ও মডার্নার মতো টিকাও এই দুই স্ট্রেনের উপর প্রভাব ফেলতে অক্ষম। এই দুঃসময়ে  আশার আলো দেখাচ্ছে ভারত বায়োটেকের তৈরি কোভ্যাক্সিন (Covaxin)।

    ব্রিটেন এবং ভারতে পাওয়া করোনাভাইরাসের দুই প্রজাতিকেই রুখে দিকে সক্ষম ভারত বায়োটেক এবং আইসিএমআর-র তৈরি কোভ্যাক্সিন। রবিবার ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থা ভারত বায়োটেকের তরফে এমনই দাবি করা হয়েছে। ব্রিটেনে করোনাভাইরাসের যে প্রজাতি পাওয়া গিয়েছিল, তার নাম বি১১৭, অন্য দিকে ভারতে সংক্রমণ ছড়ানোর জন্য দায়ী বি১৬১৭। এই ভাইরাসের আরও একটি প্রজাতি রয়েছে, যার নাম ডি৬১৪জি। ট্যুইটারে মেডিক্যাল জার্নাল 'ক্লিনিক্যাল ইনফেকসস ডিজিজ'-এর একটি প্রতিবেদন তুলে ধরেন ভারত বায়োটেকের যুগ্ম ম্যানেজিং ডিরেক্টর সুচিত্রা এলা।

    ইউরোপ-সহ গোটা বিশ্ব জুড়েই এই প্রজাতি ছড়িয়ে পড়েছিল। ভারত বায়োটেক জানিয়েছে, করোনাভাইরাসের ডি৬১৪জি প্রজাতির উপর কোভ্যাক্সিন যতটা কার্যকর, তার তুলনায় বি১৬১৭ প্রজাতির উপর কার্যকারিতার হার অবশ্য সামান্য কম। কিন্তু প্রত্যাশার তুলনায় অনেকটাই বেশি, জানাচ্ছে ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থা। সম্প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের মুখ্য স্বাস্থ্য উপদেষ্টা অ্যান্থনি ফসিও বলেছেন, ভারতে তৈরি কোভ্যাক্সিন বি১৬১৭ নামক করোনাভাইরাসের ডাবল মিউট্যান্ট প্রজাতিকে রুখে দিতে সক্ষম।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published: