Home /News /coronavirus-latest-news /
মায়ের খাবার কিনতে চুরি করল কিশোর, শাস্তির বদলে বাঁচার পথ দেখাল আদালত

মায়ের খাবার কিনতে চুরি করল কিশোর, শাস্তির বদলে বাঁচার পথ দেখাল আদালত

প্রতীকী চিত্র৷ PHOTO- FILE

প্রতীকী চিত্র৷ PHOTO- FILE

  • Share this:

    #বিহার: চুরির অভিযোগে আদালতে তোলা হয়েছিল ১৬ বছরের নাবালককে৷ কিন্তু তাকে শাস্তি দেওয়া দূরে থাক, উল্টে পুলিশকে ওই নাবালককে খাবার এবং পোশাক কিনে দেওয়ার নির্দেশ দিলেন বিচারক৷ এমনই মানবিক ঘটনার সাক্ষী থাকল নালন্দার একটি আদালত৷

    আসলে আদালতে ওই নাবালককে তোলার পর বিচারক জানতে পারেন, নিজের বিধবা এবং মানসিক ভারসাম্যহীন মায়ের জন্য খাবার সংগ্রহ করতেই বাধ্য হয়ে চুরি করেছিল সে৷ কারণ লকডাউনের কারণে বেশ কয়েকদিন ধরে তার মা অভুক্ত ছিলেন৷

    শুধু ওই নাবালকের জন্য খাবার এবং জামাকাপড়ের ব্যবস্থা করাই নয়, ওই কিশোরের মা যাতে রাজ্য সরকারি প্রকল্পের আওতায় বিধবা ভাতা এবং অন্যান্য সুবিধা পান, তা নিশ্চিত করার জন্য বিডিও-কে নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক৷ এর পাশাপাশি ওই কিশোরের পরিবারকে সরকারি প্রকল্পের আওতায় বাড়ি তৈরি করে দেওয়ার জন্য এবং কিশোরের আধার কার্ড ও পরিবারের সবার রেশন কার্ড তৈরি করে দেওয়ার জন্যও নির্দেশ দেয় আদালত৷

    পুলিশের অভিযোগ অনুযায়ী, কয়েকদিন আগে একটি বাজারের মধ্যে থেকে এক মহিলার পার্স ছিনতাই করেছিল ওই কিশোর৷ সিসিটিভি ফুটেজ দেখে তাকে গ্রেফতার করে ইসলামপুর থানার পুলিশ৷ এর পর তাকে বিহারশরিফে জুভেনাইল জাস্টিস বোর্ডের সামনে পেশ করা হয়৷

    ওই কিশোর বিচারককে জানায়, বাড়িতে মানসিক ভারসাম্যহীন মা ছাডাও ১৩ বছরের ভাই রয়েছে তার৷ বাবা মারা যাওয়ার পর থেকেই স্থানীয় খাবারের দোকান এবং বাড়িতে কাজ করে পরিবারের অন্ন সংস্থান করত সে৷ কিন্তু লকডাউনের কারণে তার আয়ের রাস্তা বন্ধ হয়ে যায়৷ বাড়িতেও খাবার ছিল না৷ ফলে ওই কিশোর এবং তার মা ও ভাই অভুক্তই ছিল৷ কিশোরের দাবি, খাবার কেনার জন্য টাকা জোগাড় করতেই বাধ্য হয়ে চুরি করেছে সে৷

    পুলিশ জানিয়েছে, আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী ওই কিশোরকে খাবার এবং পোশাক দেওয়া হয়েছে৷ বাকি নির্দেশ কার্যকর করা নিয়ে সংশ্লিষ্ট আধিকারিকদের থেকে চার মাসের মধ্যে রিপোর্ট চেয়েছে আদালত৷

    আদালতের এক কর্মী জানান, ছোটখাটো অপরাধে অভিযুক্ত নাবালকদের সংশোধনের সুযোগ দিতেই এমন পদক্ষেপ করেছে আদালত৷ এই ধরনের অপরাধের জন্য তাদের যদি আবাসিক হোমে পাঠানো হয়, তাহলে খারাপ সঙ্গে পড়ে এই নাবালকদের মধ্য অপরাধ প্রবণতা বাড়তে পারে৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:

    Tags: Bihar, Lockdown

    পরবর্তী খবর