করোনা ভাইরাস

corona virus btn
corona virus btn
Loading

বছরের শেষ দিনে বিরাট ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর

বছরের শেষ দিনে বিরাট ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর
বছরের শেষ দিনে বিরাট ঘোষণা প্রধানমন্ত্রী মোদির

ভারত কবে পাবে করোনার ভ্যাকসিন বা কোভ্যাকসিন? এই একটা প্রশ্নই দেশবাসীকে ভাবিয়েছে৷ অবশেষে বছরের শেষ দিনে সুখবরটা দিলেন নরেন্দ্র মোদি৷ দেশের প্রধানমন্ত্রী জানিয়ে দিলেন টিকাকরণের প্রস্তুতি শেষ ধাপে৷ ভারতে তৈরি হওয়া ভ্যাকসিনই পাবে দেশবাসী৷

  • Share this:

#রাজকোট: আজ ৩১ ডিসেম্বর৷ বিষে'র বিশ সালের শেষ দিন৷ আর কয়েক ঘণ্টা পরেই ২০২১-কে স্বাগত জানাবে বিশ্ব৷ নতুন ভোরে স্বপ্ন দেখার হবে শুরু৷ গোটা বছরটাই প্রায় করোনা মহামারীর গ্রাসে চলে গিয়েছিল৷ সেখান থেকে পরিস্থিতি কিছুটা হলেও স্বাভাবিক৷

আর এই বছর শুধু মাত্র করোনা টিকার অপেক্ষায় দিন গুনেছে পৃথিবী৷ অবশেষে ইউরোপের বেশ কিছু দেশে করোন টীকাকরণ শুরুও হয়েছে৷ ভারত কবে পাবে করোনার ভ্যাকসিন বা কোভ্যাকসিন? এই একটা প্রশ্নই দেশবাসীকে ভাবিয়েছে৷ অবশেষে বছরের শেষ দিনে সুখবরটা দিলেন নরেন্দ্র মোদি৷ দেশের প্রধানমন্ত্রী জানিয়ে দিলেন টিকাকরণের প্রস্তুতি শেষ ধাপে৷ ভারতে তৈরি হওয়া ভ্যাকসিনই পাবে দেশবাসী৷

বৃহস্পতিবার গুজরাতের রাজকোটে অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউটস অফ মেডিক্যাল সাইন্সেস (এইমস)-এর শিলান্যাস করলেন মোদি৷ তিনি বললেন, " দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এখন কমছে৷ ভারতে কোভিড-১৯ এর টীকাকরণের প্রস্তুতির শেষ পর্যায়৷ দেশের মানুষ ভারতে তৈরি হওয়াই টীকা পাবে৷ চেষ্টা করা হচ্ছে যাতে দেশের প্রতিটি কোনায় এই টীকা পৌঁছে দেওয়া যায়৷ আমরা চেষ্টা করছি আগামী বছর বিশ্বের সবচেয়ে বড় করোনা টীকাকরণ কর্মসূচি চালনোর৷ ২০২০ আমাদের শিখিয়ে দিয়েছে যে, স্বাস্থ্যই সম্পদ৷ ভীষণ চ্যালেঞ্জিং একটা বছর ছিল এটা৷ আগে আমি বলেছিলাম যে, দাওয়াই নেই তো ঢিলাই নেই৷ ( বাংলায় মমার্থ করলে দাঁড়ায়, ওষুধ না পাওয়া পর্যন্ত হালকা ভাবে নেওয়া যাবে না করোনাকে) ২০২১-এ আমাদের মন্ত্র দাওয়াই ভি অউর কড়াই ভি (বাংলায় মমার্থ করলে দাঁড়ায়, ওষুধও থাকবে, সতর্কতাও থাকবে৷

ভারতে সেরাম ইনস্টিটিউট 'কোভিশিল্ড' (করোনার টিকা) তৈরি করছে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও ফার্মা মেজর অ্যাস্ট্রাজেনকা পরামর্শ নিয়ে৷ ভারত বায়োটেক ও ইন্ডিয়ান কাউন্সি অফ মেডিক্যাল রিসার্চ (আইসিএমআর) এই টিকা নিয়ে আসবে বাজারে৷

এই মুহূর্তে যাবতীয় তথ্য সংগ্রহের কাজ চলছে৷ শুক্রবার বিশেষজ্ঞদের প্যানেল ফের বৈঠক হবে৷ তাঁরা সবুজ সঙ্কেত দিলেই তা চলে যাবে ড্রাগস কন্ট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়া-র(ডিসিজিআই) কাছে৷ এটাই শেষ ধাপ৷ সরকার চাইছে আগামী মাস থেকেই করোনার টীকাকরণ শুরু করে দিতে৷

Published by: Subhapam Saha
First published: December 31, 2020, 2:36 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर