Home /News /coronavirus-latest-news /
কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে আনন্দ!‌ দেখুন অসমে বাঁশি বাজিয়ে বিহু নাচ করোনা আক্রান্তদের

কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে আনন্দ!‌ দেখুন অসমে বাঁশি বাজিয়ে বিহু নাচ করোনা আক্রান্তদের

Image: ANI Twitter

Image: ANI Twitter

আপনার মনে যদি জোর থাকে, স্ফুর্তি থাকে, তাহলে কিছুই আপনাকে দমাতে পারবে না!‌ অনেকেই এই তত্ত্বে বিশ্বাস করেন।

  • Share this:

    ‌#‌‌ডিব্রুগড়:‌ কোয়ারেন্টিন সেন্টার!‌ করোনা আক্রান্ত রোগীরা সেখানে আটকে রয়েছেন। কিন্তু তাতে কী?‌ জীবনের সব আনন্দকে তাঁরা দূরে ঠেলে দিয়েছেন, এমন তো নয়। আর সেই কারণেই অসমের ডিব্রুগড়ের কোয়ারেন্টাইন সেন্টার বদলে গেল বিহু উৎসবের মঞ্চে। একজন বাঁশি বাজালেন বিহু তালে, আর সেই তালে হাততালি দিয়ে নেচে উঠলেন আক্রান্তরা। সংবাদসংস্থার শেয়ার করা ভিডিও মুহূর্তে ভাইরাল হল সোশ্যাল মিডিয়ায়।

    আপনার মনে যদি জোর থাকে, স্ফুর্তি থাকে, তাহলে কিছুই আপনাকে দমাতে পারবে না!‌ অনেকেই এই তত্ত্বে বিশ্বাস করেন। এই ভিডিও যেন সেই বার্তাই নিয়ে চলেছে। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে চারিদিকে একের পর এক বেড। সেখানেই রয়েছেন করোনা আক্রান্ত রোগীরা। আর সেই রোগীদের মধ্যেই একজন হাতে তুলে নিয়েছেন বাঁশি। আর সেই বাঁশিতেই বেজে উঠেছে বিহুগানের সুর। আর সেই বাঁশির সুরের তালে গানও গাইতে শুরু করেছেন কোয়ারেন্টাইন সেন্টারের আবাসিকরা। সেই ভিডিওই ভাইরাল হয়েছে মুহূর্তে।

    অনেকেই বলছেন, করোনা ভাইরাসের প্রকোপের ফলে ঘরবন্দি থাকতে থাকতে ক্রমে অবসাদ গ্রাস করছে সাধারণ মানুষকে। আর সেই অবসাদের কারণ, বন্ধু, আত্মীয়র সঙ্গে দেখা না হাওয়া, আড্ডা, আনন্দ সব বন্ধ হয়ে যাওয়া। কিন্তু কী করে এসবের মধ্যেও নিজের মনকে ভুলিয়ে রাখার আনন্দটুকু খুঁজে নিতে হয়, এই ভিডিও যেন তাঁরই প্রমাণ। এবার করোনা ভাইরাসের প্রকোপের কারণে বিহু উৎসব কেন, কোনও উৎসব পালন করাই সম্ভব হচ্ছে না। তাই এভাবেই অচেনা রোগীদের মধ্যে নিজের বন্ধু খুঁজে নিয়েছেন অসমের করোনা আক্রান্তরা। আর সেখানেই নিজের মতো করে বাঁচার রসদ মনের মধ্যে জুটিয়ে নিতে গান, নাচে ভুলিয়ে রাখছেন নিজেদের।

    সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই শেয়ার করেছেন এই ভিডিও। এটি শেয়ার করে তাঁরাও লিখেছেন, এমন করেই হাজার বাধা বিঘ্নের মধ্যেও মনের রসদটা খুঁজে নিতে পারলেই অবসাদ আর গ্রাস করতে পারবে না। তখন করোনার বিরুদ্ধে লড়াইটা আরও সহজ হবে।

    Published by:Uddalak Bhattacharya
    First published:

    Tags: Coronavirus

    পরবর্তী খবর