corona virus btn
corona virus btn
Loading

দুর্বিসহ, মারাত্মক করোনা অভিজ্ঞতা জানালেন রোগী, বোঝালেন মৃত্যুযন্ত্রণা হয়ত এর থেকে ভাল!

দুর্বিসহ, মারাত্মক করোনা অভিজ্ঞতা জানালেন রোগী, বোঝালেন মৃত্যুযন্ত্রণা হয়ত এর থেকে ভাল!
করোনা রোগীর অভিজ্ঞতা

শারীরিক ও মানসিক যে যন্ত্রণা তিনি পেয়েছেন করোনা আক্রান্ত হয়ে, সে কথা সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখলেন মহিলা৷ শুধু শ্বাসকষ্ট নয়, তাঁর স্নায়ুর সমস্যা হয়েছিল ভয়ঙ্কর, জানালেন তিনি৷

  • Share this:

#ওয়াশিংটন: ভয়ঙ্কর, মারাত্মক এমনই অভিজ্ঞতার কথা সরাসরি জানালেন করোনা রোগী৷ নিজে মুখে তুলে ধরলেন অসম্ভব শরীর খারাপের কথা৷ এতটাই খারাপ তাঁর পরিস্থিতি যে, তিনি লিখলেন যে 'মরতে চাইনি ঠিকই কিন্তু এই করোনা নিয়ে বাঁচাও খুবই অসহ্যকর'৷

ট্যুইটারে নিজের কথা তুলে ধরেছেন মার্কিন মহিলা দানি অলিভার৷ করোনার জেরে প্রচন্ড শারীরিক ও মানসিক যন্ত্রণায় ভুগতে হয়েছে তাঁকে৷ মার্চ মাসের করোনা আক্রান্ত হন দানি৷ শ্বাসের সমস্যা, কার্ডিওভাসকুলার (cardiovascular) এবং স্নায়ুর (neurological) সমস্যা হয়েছিল মারাত্মক৷ করোনা অভিজ্ঞতা আতঙ্কজনক, এইভাবেই রোগের সঙ্গে লড়াই করার ব্যাখ্যা দিয়েছেন দানি৷ তবে তিনি যেই কষ্টকর উপসর্গের কথা উল্লেখ করেছেন, তাকে মান্যতা দেয়নি সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (Centers for Disease Control and Prevention)৷

কী কী উপসর্গে ভুগছেন তিনি? দানি জানিয়েছেন যে, তাঁর হার্টবিট ঘুমের সময়ও ১৬০ থাকছে৷ এরফলে সারাক্ষণ যেন ধড়ফড়ানি অনুভব করছেন তিনি৷ 'বুকে ব্যাথা এমন যেন মনে হচ্ছে কেউ চেপে বসে রয়েছে৷ পিঠে আর পাঁজরে ব্যাথাটা এমন যেন কেউ মেরেছে৷ তার সঙ্গে প্রচন্ড দুর্বলতা রয়েছে৷ এমনই দুর্বল লাগছে যে মাঝেমাঝে মনে হয়েছে যে আমি যেন মরেই যাচ্ছি'৷

এর সঙ্গে পেট খারাপ, ডায়রিয়া, অ্যাসিড রিফ্লাক্স চলছে ২ মাস ধরে! জানিয়েছেন দানি৷ সঙ্গে যুক্ত হয়েছে অসম্ভব মাথা ঘোরানোর উপসর্গও৷ সর্বক্ষণ নিশ্বাঃস তিনি অসুবিধা হচ্ছে৷ তবে এগুলোর কোনও ব্যাখ্যা দিতে পারছেন না চিকিৎসকরা৷ এটাও জানিয়েছেন মার্কিন মহিলা৷

এসবের ফলে মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন তিনি৷ সর্বদা যেন তিনি বিভিন্ন আওয়াজ শুনতে পারছেন৷ রাতে ঠিক করে ঘুমোতে পারছেন না এবং ঘুমের মধ্যে শ্বাসের সমস্যার ফলে তিনি উঠে পড়ছেন৷ একইসঙ্গে কথা ঠিক ভাবে না বলতে পারা, না পড়তে পারার মতো অসুবিধাও হচ্ছে তাঁর৷

ইতিমধ্যেই আমেরিকায় করোনায় মৃত ১লক্ষ ২৯ হাজার৷ এবং ২কোটি ৭০ লক্ষ মানুষ আক্রান্ত৷

Published by: Pooja Basu
First published: July 5, 2020, 8:20 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर