Coronavirus Update: এ বছরে একদিনে সবচেয়ে বেশি মৃত, আরও ভয়ঙ্কর হচ্ছে করোনা!

Coronavirus Update: এ বছরে একদিনে সবচেয়ে বেশি মৃত, আরও ভয়ঙ্কর হচ্ছে করোনা!

আরও ভয়ঙ্কর হচ্ছে করোনা!

একদিনে দেশজুড়ে করোনায় (Covid-19) মৃত্যু হয়েছে ৩৫৪ জনের। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের খবর অনুযায়ী, এ নিয়ে দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ১,৬২,৪৬৮ জন। গত ১৭ ডিসেম্বর একদিনে ভারতে মৃত্যু হয়েছিল ৩৫৫ জনের।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: ফের ভয়াবহ রূপ ধারন করেছে দেশের করোনাভাইরাস (Coronavirus) পরিস্থিতি। প্রতিদিন বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতের করোনায় (Corona) নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৫৩ হাজার ৪৮০ জন। এ বছরের নিরিখে মৃতের সংখ্যা এদিন সর্বাধিক। একদিনে দেশজুড়ে করোনায় (Covid-19) মৃত্যু হয়েছে ৩৫৪ জনের। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের খবর অনুযায়ী, এ নিয়ে দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ১,৬২,৪৬৮ জন। গত ১৭ ডিসেম্বর একদিনে ভারতে মৃত্যু হয়েছিল ৩৫৫ জনের।

    বুধবার দেশের করোনায় অ্যাক্টিভ রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫,৫২, ৫৬৬ জন। আক্রান্তের হার বেড়েছে ৪.৫৫ শতাংশ। সুস্থতার হারও ফের কমেছে ৯৪.১১ শতাংশ। বুধবার সকালে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফে এই তথ্য আপডেট করা হয়েছে। এই পর্যন্ত দেশে করোনাভাইরাস থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১,১৪,৩৪,৩০১ জন। তবে মৃত্যুর হার একই জায়গায় রকয়েছে ১.৩৪ শতাংশ।

    কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী রাজেশ ভূষণ জানিয়েছেন এই মুহূর্তে দেশের ১০টি জেলায় সক্রিয় কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। এবং এই ১০টি জেলার মধ্যে রয়েছে দিল্লিও। এই ১০টি জেলার মধ্যে রয়েছে- পুণে, মুম্বই, নাগপুর, থানে, নাসিক, ঔরঙ্গাবাদ, বেঙ্গালুরু আরবান, নান্দেদ, দিল্লি এবং আহমেদনগর। দেশের এই জেলাগুলিতেই ক্রমশ করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। এই এলাকাগুলিতে RT-PCR পরীক্ষা যাতে বাড়ানো হয় সেই দিকে নজর দিতে বলা হয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রক থেকে।

    করোনা পরিস্থিতি সামলাতে যাঁরা আক্রান্ত এবং তাঁদের সংস্পর্শে যাঁরা এসেছেন তাঁদের অবিলম্বে আইসোলেশনের নির্দেশ দিচ্ছে কেন্দ্র। এই এলাকাগুলিতে যাতে ভিড় না হয় এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় থাকে সেই দিকে নজর দেওয়ার কথাও বলা হয়েছে। বয়স অনুযায়ী যাতে কোভিডের টিকা বাড়ানো হয় সেই দিকেও খেয়াল রাখতে হবে।

    করোনা সংক্রমণ ৫ গুণ বেড়ে গিয়েছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্যমন্ত্রক। এই মুহূর্তেই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না আনলে সব কিছু হাতের বাইরে চলে যাবে। এখনই পরিস্থিতি বেশ চিন্তার বলেই জানাচ্ছে কেন্দ্র। স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানাচ্ছে, পঞ্জাবে পর্যাপ্ত পরিমাণে টেস্ট হচ্ছে না এবং তাই কারা পজিটিভ তা জেনে তাদের আইসোলেট করা যাচ্ছে না। দিল্লির সংক্রমণও অবিলম্বে নিয়ন্ত্রণে না আনলে পরিস্থিতি আরও হাতের বাইরে চলে যাবে।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published:

    লেটেস্ট খবর