করোনা আতঙ্কে নয়ডায় জারি হাই অ্যালার্ট, দিল্লির হায়াত হোটেলেও ছড়াল আতঙ্ক !

করোনা আতঙ্কে নয়ডায় জারি হাই অ্যালার্ট, দিল্লির হায়াত হোটেলেও ছড়াল আতঙ্ক !
Representational Image

গত ২৮ ফেব্রুয়ারি তাঁর ছেলের জন্মদিনের পার্টিতে যোগ দেয় ওই পড়ুয়ারা। করোনা আতঙ্কে ওই স্কুল বন্ধ রাখা হচ্ছে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: করোনা আতঙ্কে নয়ডায় হাই অ্যালার্ট। ২৮ দিনের জন্য আইসোলেশনে পাঠানো হল একটি স্কুলের ৪০ জন পড়ুয়াকে। ওই স্কুলের এক পড়ুয়ার বাবা করোনায় আক্রান্ত। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি তাঁর ছেলের জন্মদিনের পার্টিতে যোগ দেয় ওই পড়ুয়ারা। করোনা আতঙ্কে ওই স্কুল বন্ধ রাখা হচ্ছে।

করোনা আতঙ্কে বন্ধ নয়ডার স্কুল ৷ আইসোলেশনে স্কুলের ৪০ পড়ুয়া ৷ চলতি বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি বন্ধুর জন্মদিনের পার্টিতে যোগ দেয় নয়ডার একটি স্কুলের পড়ুয়ারা। দু-দিন পর ওই পড়ুয়ার বাবার দেহে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে। তারপর থেকেই করোনা আতঙ্ক নয়ডা জুড়ে।

উদ্বিগ্ন অভিভাবকরা। পরিস্থিতি মোকাবিলায় পরীক্ষা বাতিল করেছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। দু-দিনের জন্য স্কুল বন্ধ রাখা হচ্ছে। তবে প্রশাসনের আশ্বাস, করোনা মোকাবিলায় তারা তৈরি। করোনা আক্রান্ত এই ব্যক্তি দিল্লির বাসিন্দা। সম্প্রতি ব্যবসার কাজে ভিয়েনা গিয়েছিলেন তিনি। ১৬ ফেব্রুয়ারি দিল্লি বিমানবন্দরে নামেন। তবে সেই সময় ভিয়েনায় করোনা সতর্কতা ছিল না। ২২ ফেব্রুয়ারি সর্দি-কাশি নিয়ে চিকিৎসকের কাছে যান ওই ব্যক্তি ৷ চিকিৎসকও করোনা সংক্রমণ সন্দেহ করেননি ৷

অসুস্থতা বাড়ায় নয়ডার একটি হাসপাতালে যান। তখন তাঁর থুতুর নমুনা পরীক্ষায় পাঠানো হয়। ২৯ ফেব্রুয়ারি রাতে পরীক্ষার রিপোর্ট আসে। রিপোর্টে ধরা পড়ে, তিনি করোনায় আক্রান্ত। পয়লা মার্চ সে কথা জানতে পারেন ওই পড়ুয়ার অভিভাবক।

স্কুলের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে সেই খবর ছড়ায়করোনা আক্রান্ত ওই ব্যক্তি গত কয়েকদিনে কোথায় কোথায় গিয়েছেন, কি করেছেন, জানার চেষ্টা করছে স্থানীয় প্রশাসন। সোমবার দিল্লির এক বাসিন্দার শরীরে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে।

ভারতের একাধিক শহরে এখন করোনা আতঙ্ক ৷ আগরা, নয়ডা, বেঙ্গালুরুতে করোনা আতঙ্ক ৷ হায়দরাবাদ, জয়পুরেও রয়েছে করোনা আতঙ্ক ৷ আগরায় ৬ জনের দেহে হাই ভাইরাল লোড ৷ ওই ৬ জনকে রাখা হয়েছে আইসোলেশনে ৷ জয়পুরে এক ইতালীয়র দেহে করোনা ভাইরাস ৷ তেলঙ্গনা ও দিল্লিতে ২ জনের দেহে করোনা ভাইরাস পাওয়া গিয়েছে ৷ করোনায় আক্রান্ত ২ জনের সংস্পর্শে এসেছেন অনেকেই ৷ তাই আতঙ্কে এখন অনেক মানুষই ৷

First published: March 3, 2020, 5:11 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर