করোনা ভাইরাস

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

আরও সহজ হবে পরীক্ষা, র‍্যাপিড ডায়াগনস্টিক কিট তৈরি হবে এরাজ্যে, উদ্যোগ IIT খড়গপুরের

আরও সহজ হবে পরীক্ষা, র‍্যাপিড ডায়াগনস্টিক কিট তৈরি হবে এরাজ্যে, উদ্যোগ IIT খড়গপুরের

রবিবার আইআইটি খড়্গপুরের তরফে বিজ্ঞপ্তি দিয়েও জানানো হয়েছে। মূলত প্রাথমিক ও জরুরি ভিত্তিতে আইআইটি খড়গপুর র‍্যাপিড টেস্টিং কিট তৈরি করার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

  • Share this:

#কলকাতা: করোনাভাইরাস মোকাবিলায় এবার স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে একাধিক সিদ্ধান্ত নিল আইআইটি খড়গপুর। মূলত করোনাভাইরাস মোকাবিলায় একগুচ্ছ নয়া প্রযুক্তি তৈরি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এই মর্মে রবিবার আইআইটি খড়্গপুরের তরফে বিজ্ঞপ্তি দিয়েও জানানো হয়েছে। মূলত প্রাথমিক ও জরুরি ভিত্তিতে আইআইটি খড়গপুর র‍্যাপিড টেস্টিং কিট তৈরি করার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

সম্প্রতি আইআইটি খড়গপুরের তরফে করোনাভাইরাস মোকাবিলায় এক গুচ্ছ প্রস্তাব আইআইটি কাউন্সিলে পেশ করা হয়। পেশ করা প্রস্তাবের মধ্যে আটটি প্রস্তাবকে সবুজ সংকেত দেয় আইআইটি কাউন্সিল। ইতিমধ্যেই আইআইটি খড়গপুরকে টুইট করে কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল সাধুবাদ জানিয়েছে। এ প্রসঙ্গে আই আই টি খড়গপুর এর অধিকর্তা ভিরেন্দ্র কুমার তিওয়ারি বলেন " দেশের স্বার্থে দ্রুততার সঙ্গে আমরা এই প্রস্তাব গুলি বাস্তবসম্মত করব। এটা আমাদের দায়িত্ব স্বাস্থ্যের মানকে আরো উন্নত করা যা সমাজের কাজে লাগবে।"

মূলত আইআইটি খড়গপুরের গবেষকরা করোনাভাইরাস মোকাবিলায় আটটি বিষয়ের ওপর কাজ করবেন। তারই মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে র‍্যাপিড ডায়াগনোস্টিক কীট তৈরি করবে আইআইটি খড়গপুরের গবেষকরা।এই র‍্যাপিড ডায়াগনোস্টিক কিট তৈরি নকশা তৈরি করবে গবেষকরা। মূলত দেশজুড়ে করোনাভাইরাস মোকাবিলার জন্য বারবারই চিকিৎসকরা র‍্যাপিড কীটের মাধ্যমে টেস্টের কথা বলে আসছেন।বিশেষত দেশজুড়ে এই করোনাভাইরাস কে মোকাবিলা করার জন্য এই প্রযুক্তির মাধ্যমে টেস্ট করা অত্যন্ত জরুরী বলে মনে করছেন বিজ্ঞানী থেকে চিকিৎসকরা। এক্ষেত্রে আইআইটি খড়গপুর এর গবেষকরা এই কিট তৈরি করা কে সার্বিকভাবে অগ্রাধিকার দিলেও এর পাশাপাশি আরো বেশ কিছু কাজ নিয়েছে আইআইটি খড়গপুর।

মূলত রিয়েল টাইম পিসিআর মেশিন, করোনাভাইরাস এ আক্রান্ত রোগীদের জন্য নির্দিষ্ট বডি সুইট, স্বাস্থ্য কর্মীদের জন্য পিপিই কিট তৈরি করা, চিকিৎসক তথা হাসপাতলে কর্মরতদের জন্য হাশমাট সুইট তৈরি করা সহ একাধিক বিষয় তৈরির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আইআইটি খড়গপুর এর গবেষকরা এরই সঙ্গে করোনাভাইরাস আটকাতে ভ্যাকসিনের প্রোটিন তৈরি করবে এবং তা টেস্টিং ও করবে বলে জানানো হয়েছে আইআইটি খড়গপুর এর তরফে। ইতিমধ্যেই এই কাজগুলোর জন্য ৫০ লক্ষ টাকা অনুমোদন দিয়েছে আইআইটি। আইআইটি খড়গপুর এর  তরফে জানানো হয়েছে এরমধ্যে কিছু জিনিস তৈরি হতে ৩-৪সপ্তাহ সময় সময় লাগবে আবার কিছু জিনিসের ফলাফল পেতে ছয় মাস পর্যন্ত সময় লেগে যাবে। লকডাউন উঠে যাওয়ার পর গবেষকদের সহযোগিতায় ল্যাব গুলিতে কাজ শুরু হয়ে যাবে বলে আশাবাদী আইআইটি কর্তৃপক্ষ।

Somraj Bandopadhyay

Published by: Elina Datta
First published: April 19, 2020, 6:35 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर