Coronavirus Lockdown: ‘ডেলিভারি বয়দের দেওয়া হবে বিশেষ পাশ, অত্যাবশ্যকীয় পণ্য সরবরাহে বাধা দেবেন না,’ পুলিশকে নির্দেশ মমতার

Coronavirus Lockdown: ‘ডেলিভারি বয়দের দেওয়া হবে বিশেষ পাশ, অত্যাবশ্যকীয় পণ্য সরবরাহে বাধা দেবেন না,’ পুলিশকে নির্দেশ মমতার

পণ্য সরবরাহে বাধা নিয়ে অভিযোগ পেতেই পুলিশকে ধমক মুখ্যমন্ত্রীর ৷ কড়া ভাষায় নির্দেশ, কোনও অত্যাবশ্যকীয় পণ্য সরবরাহে বাধা দিলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে ৷

  • Share this:

#কলকাতা: অত্যাবশ্যকীয় পণ্য সরবরাহে বাধা নিয়ে অভিযোগ পেতেই পুলিশকে ধমক মুখ্যমন্ত্রীর ৷ কড়া ভাষায় নির্দেশ, কোনও অত্যাবশ্যকীয় পণ্য সরবরাহে বাধা দিলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে ৷ করোনা মোকাবিলায় তৎপর রাজ্য সরকার ৷ লকডাউনের মধ্যে জরুরী পরিষেবা ও আবশ্যক পণ্য সরবরাহে যাতে কোনও ছেদ না পড়ে তার জন্য সচেতন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ ইকর্মাস ও জরুরি পরিষেবার ডেলিভারি বয়দের হয়রানি কমাতে বিশেষ পাসের ব্যবস্থার ঘোষণাও করেন তিনি ৷ একইসঙ্গে পুলিশকর্মীদেরও এ বিষয়ে আরও সচেতন হওয়ার কড়া নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রীর ৷

যতদিন যাচ্ছে আরও দাপট বাড়চ্ছে করোনার ৷ সংক্রমণ আরও ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে গোটা দেশ জুড়ে ২১ দিনের লকডাউন ৷ গৃহবন্দি গোটা দেশের মধ্যেই রসদ নিয়ে আতঙ্ক ৷ লকডাউনে সাধারণ মানুষকে আটকাতে গিয়ে কখনও কখন পুলিশকর্মীদের বাধার মুখে অত্যাবশ্যকীয় পণ্য সরবরাহকারী কর্মীরা ৷ সেই সমস্যার সমাধানে বুধবার সাংবাদিক সম্মেলনে কড়া ভাষায় তিনি বলেন, ‘ডেলিভারি বয়দের শুধু শুধু হয়রান করা যাবে না ৷ অত্যাবশ্যকীয় পণ্য সরবরাহে বাধা নয় ৷ হোম ডেলিভারির জন্য বিশেষ পাসের ব্যবস্থা করছে সরকার ৷ গোটা রাজ্যে একই পাস চলবে ৷ সবজি বিক্রি করতে দিতে হবে ৷ কৃষকদের মাঠে কাজ করতে দিতে হবে ৷ সবজি নিয়ে এলে আটকানো যাবে না ৷ না মানলে কড়া পদক্ষেপ করা হবে ৷ এছাড়া জরুরি পরিষেবার জন্যও বিশেষ বাস চালানো হচ্ছে ৷’

পাশাপাশি, চালু করা হয়েছে আপৎকালীন কন্ট্রোল রুম। রাজ্যের কন্ট্রোল রুম নম্বর ১০৭০। করোনার জেরে দেশজুড়ে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন। বাড়িতেই কাটাতে বলা হয়েছে দেশবাসীকে। এদিন নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, রাজ্যের মানুষ যে কোনও প্রয়োজনে ফোন করতে পারেন নবান্নের হেল্পলাইন নম্বরে। রাজ্যের হেল্পলাইন নম্বর: ০৩৩-২২১৪৩৫২৬। এই নম্বরে ফোন করে যে কোনও সাহায্য চাইতে পারবেন সাধারণ মানুষ। এমনকি রাজ্যের মানুষের সাহায্যার্থে করোনা মোকাবিলায় দুটি টাস্কফোর্স গঠন করে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

First published: March 25, 2020, 7:11 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर