করোনা ভাইরাস

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

কোথা থেকে এবং কী ভাবে এল করোনা ভাইরাস ? নিরপেক্ষ তদন্তের প্রস্তাব ৬২টি দেশের

কোথা থেকে এবং কী ভাবে এল করোনা ভাইরাস ? নিরপেক্ষ তদন্তের প্রস্তাব ৬২টি দেশের
Representational Image

WHO-র সদস্য দেশগুলোর বার্ষিক সম্মেলন চলছে ৷ এবারের সম্মেলন ভিডিও কনফারেন্সে হচ্ছে ৷ প্রথম দিনেই কোভিড নিয়ে নিরপেক্ষ তদন্তের প্রস্তাব ৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: কোথা থেকে এবং কী ভাবে এল করোনা ভাইরাস। এটা কি মানুষের তৈরি? না পশুদেহ থেকে ছড়িয়েছে এই মারণ ভাইরাস? নিরপেক্ষ তদন্তের দাবিতে একজোট ভারত, অস্ট্রেলিয়া, জাপান, কানাডা-সহ ৬২টি দেশ। কোভিড-১৯ সংকটের মোকাবিলায় ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন বা WHO-র ভূমিকা খতিয়ে দেখার প্রস্তুতি নিচ্ছে সদস্য দেশগুলো।

কোভিড-১৯ নিয়ে চিন যা দাবি করছে, তা কি বিশ্বাসযোগ্য বলে মনে করছে না অধিকাংশ দেশ? করোনাভাইরাস নিয়ে নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি তুলে একজোট হল অস্ট্রেলিয়া, জাপান, কানাডা, ব্রিটেন, দক্ষিণ কোরিয়া, ব্রাজিল এবং ভারত-সহ ৬২টি দেশ। করোনাভাইরাস কোথা থেকে এল, তা নিয়ে নিরপেক্ষ তদন্তের দাবিতেও একজোট এই দেশগুলো।

অস্ট্রেলিয়া এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের আনা প্রস্তাবে একমত ভারত সহ ৬২টি দেশ। পাশাপাশি, কোভিড-19 WHO-র ভূমিকা নিয়েও তদন্তের প্রস্তাব পেশ ৷ খসড়া প্রস্তাবে বলা হয়েছে, কোভিড-19 মানুষের তৈরি কিনা তা নিয়ে সংশয় থাকতেই পারে। এটা অভূতপূর্ব এক সঙ্কট। তাই কোভিড-19 সঙ্কট নিয়ে নিরপেক্ষ, স্বাধীন এবং সবিস্তার তদন্তের প্রয়োজন ৷ ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত হওয়া দরকার ৷ কোভিডের উৎস খোঁজাটা সময়সাপেক্ষ ও চ্যালেঞ্জিং ৷ কোনও একটি দেশের পক্ষে সেটা সম্ভব নাও হতে পারে ৷

তবে খসড়া প্রস্তাবে চিন বা ইউহানের নামের উল্লেখ করা হয়নি। সূত্রের খবর, এটা কূটনৈতিক কৌশল। চিন যাতে এব্যাপারে একতরফা অভিযোগ তুলতে না পারে, সেই কারণেই নাম রাখা হয়নি।

আমেরিকা বার বারই এই সংক্রমণের জন্য চিনকে দায়ী করেছে। শুধু তাই নয়, কী ভাবে এই সংক্রমণ ছড়াল, তা নিয়ে তদন্তের দাবিও তোলে তারা। সংক্রমণ ঠেকাতে ব্যর্থ হওয়ার পাশাপাশি করোনাভাইরাস নিয়ে WHO-র বিরুদ্ধে ভুল তথ্য দেওয়ার অভিযোগও তোলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেন, ‘‘আমরা চিনের ভূমিকা নিয়ে তদন্ত করছি। চিন, ভাইরাস অন্য দেশে ছড়িয়ে পড়া আটকাতে পারত। সেই চেষ্টাই চিন করেনি। এ ব্যাপারে আমাদের কাছে প্রমাণ আছে ৷ ’’

WHO-র ভূমিকা নিয়ে তোপ দেবে আর্থিক অনুদান বন্ধ করেছে আমেরিকা। অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, দক্ষিণ কোরিয়ার মত দেশও ধুইয়ে দিচ্ছে বিশ্ব সংস্থাকে।অস্ট্রেলিয়ার বিদেশমন্ত্রী মেরিস পেইনের কটাক্ষ, হু-কে করোনারভাইরাসের তদন্ত করতে বলব। ব্যাপারটা অনেকটা শিকারিকে বনের পশুদের দেখাশোনা করতে দেওয়ার মতো ৷

জাপানের স্বাস্থ্যমন্ত্রীর কটাক্ষ, ‘‘WHO কি করেছে, কি করছে, তা শার্লক হোমসই বলতে পারবেন। আর যদি কেউ পারেন তিনি WHO প্রধান।’’

WHO কী বলছে? সংস্থার মুখপাত্র, মার্গারেট হ্যারিসের দাবি, চিনের কথা চিনই বলবে। তবে WHO যে কোনও তদন্তের জন্য তৈরি।

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: May 18, 2020, 8:14 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर