জমায়েত বারণ, তাও ওষুধ দোকান লাগোয়া ডাক্তারের চেম্বারগুলিতে রোগী ও রোগীর আত্মীয়ের জমায়েত

জমায়েত বারণ, তাও ওষুধ দোকান লাগোয়া ডাক্তারের চেম্বারগুলিতে রোগী ও রোগীর আত্মীয়ের জমায়েত

এমন অবস্থায় যদি সত্যিই যদি কোনো অসুস্থ রোগীর মধ্যে করোনা ভাইরাস থেকে থাকে তাহলে তার ছড়ানোর সম্ভাবনা রয়েছে।

  • Share this:
#সিউড়ি: করোনা ভাইরাস সতর্কতায় যখন এক জায়গায় বেশি মানুষকে ভিড় করতে বারণ করা হচ্ছে,  ঠিক তার উল্টো ছবি দেখা গেল বীরভূমের সিউড়ির বিভিন্ন ওষুধের দোকান লাগোয়া ডাক্তারের চেম্বার গুলিতে। কোন কোন জায়গায় রোগী ও রোগীর বাড়ির আত্মীয়-স্বজন মিলিয়ে 100 বেশি লোকজন জমা হয়েছে চেম্বারে,   আবার কোন কোন জায়গায় দেখা গেল শিশু বিশেষজ্ঞের কাছে 50 থেকে 60 জন শিশু কোলে নিয়ে বসে । আর বেশিরভাগেরই উপসর্গ সর্দি-কাশি। এমন অবস্থায় যদি সত্যিই যদি কোনো অসুস্থ রোগীর মধ্যে করোনা ভাইরাস থেকে থাকে তাহলে তার  থেকে ছড়ানোর সম্ভাবনা রয়েছে। রোগী বা রোগীর বাড়ির আত্মীয়দের জিজ্ঞাসা করা হলে তাদের সাফ জবাব বসার জায়গায় যদি না থাকে,  তাহলে নূন্যতম দূরত্ব বজায় রেখে কি করে বসবো? তবে এই ঘটনা নিয়ে ইতিমধ্যেই আলোচনা শুরু হয়েছে বীরভূম জেলা প্রশাসনে। আগামী দিনে এই সমস্ত ডাক্তারের চেম্বার গুলিতে যাতে রোগী বা রোগীর বাড়ির আত্মীয়রা ন্যূনতম দূরত্ব বজায় রেখে বসতে পারে তার জন্য নির্দেশ দেওয়া হতে পারে বলে জানা গিয়েছে। তবে সর্দি কাশির লক্ষণ থাকলে সরাসরি সরকারি হাসপাতালে যাওয়াটাই ভালো বলে ভাবছে বীরভূম জেলা প্রশাসন। Supratim Das
First published: March 18, 2020, 11:58 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर