ধীরে ধীরে স্বাভাবিক ছন্দে ফিরছে দেশ, সামান্য বাড়ল দৈনিক সংক্রমণ, টিকাকরণ প্রায় ৫৮ লক্ষের

ধীরে ধীরে স্বাভাবিক ছন্দে ফিরছে দেশ, সামান্য বাড়ল দৈনিক সংক্রমণ, টিকাকরণ প্রায় ৫৮ লক্ষের

গত ২৪ ঘণ্টায় আগের দিনের থেকে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা সামান্য বাড়লেও ১২ হাজারের কাছাকাছি কোভিডরোগী সুস্থ হয়েছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় আগের দিনের থেকে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা সামান্য বাড়লেও ১২ হাজারের কাছাকাছি কোভিডরোগী সুস্থ হয়েছেন।

  • Share this:

    #নয়া দিল্লি: ভারতে কোভিডে মৃতের সংখ্যাটি একশোর অনেকটাই নীচে এসেছে রবিবার। অন্যদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় আগের দিনের থেকে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা সামান্য বাড়লেও ১২ হাজারের কাছাকাছি কোভিডরোগী সুস্থ হয়েছেন। যদিও সামান্য বেড়েছে দৈনিক সংক্রমণের হার। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী, শনিবার ভারতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১ কোটি ৮ লক্ষ ২৬ হাজার ৩৬৩। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১২ হাজার ৫৯ জন।

    এ দিন ভারতে করোনায় সক্রিয় রোগী রয়েছেন ১ লক্ষ ৪৮ হাজার ৭৬৬ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে সক্রিয় রোগী বেড়েছে ১৭৬ জন। বর্তমানে দেশে মাত্র ১.৩৭ শতাংশ কোভিডরোগী চিকিৎসাধীন। প্রসঙ্গত, দেশে সামগ্রিক সংক্রমণের হার শেষ কয়েক দিন ধরে ক্রমশ কমছিল। এ দিন তা কিছুটা বেড়েছে। তবে দৈনিক সংক্রমণের হার ১ এবং ২ শতাংশের মধ্যে ওঠানামা করছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারত ৬ লক্ষ ৯৫ হাজার ৭৮৯টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। ফলে দৈনিক সংক্রমণের হার বেড়ে হয়েছে ১.৭৩ শতাংশ। যা আগের দিন ছিল ১.৫৮ শতাংশ।

    অপরদিকে, গত ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ভারতে মোট ২০ কোটি ১৩ লক্ষ ৬৮ হাজার ৩৭৮টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। যার মধ্যে মাত্র ৫.৩৭ শতাংশ মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন। এই সংক্রমণের হার আগামী দিনে আরও কমবে এই আশা করা যায়। তবে সংক্রমণের শীর্ষে কেরল রয়েছেই। সেখানে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫,৯৪২ জন। যা আগের দিনের তেকে কিছুটা বেশি। সংক্রমণের নিরিখে দ্বিতীয় স্থানে ছিল মহারাষ্ট্র (২,৭৬৮)।

    গত শনিবারের পর ভারতে কোভিডে মৃতের সংখ্যাটি ফের একশোর নীচে এসে গিয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ৭৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর ফলে দেশে এখনও পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে হল ১ লক্ষ ৫৪ হাজার ৯৯৬। ভারতে এখন মৃত্যুহার রয়েছে ১.৪৩ শতাংশ। অন্যদিকে. ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১১ হাজার ৮০৫ জন কোভিডরোগী। এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১ কোটি ৫ লক্ষ ২২ হাজার ৬০১।

    এরইমধ্যে টিকাকরণ অভিযানে দেশে এখনও পর্যন্ত ৫৭ লক্ষ ৭৫ হাজার ৩২২ জনকে টিকা দেওয়া হয়েছে। উল্লেখ্য, গত ১৬ জানুয়ারি থেকে দেশে করোনার বিরুদ্ধে টিকাকরণ শুরু হয়েছে। এরইমধ্যে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন জানিয়েছেন, দেশে আরও সাতটি কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন তৈরি করছেন এবং দেশের প্রত্যেক নাগরিকের টিকা প্রদানের লক্ষ্যে কাজ করা হচ্ছে।

    স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেছেন, এখনও পর্যন্ত খোলাবাজারে ভ্যাকসিন সরবরাহের কোনও পরিকল্পনা নেই। পরিস্থিতি অনুযায়ী, এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। হর্ষবর্ধন আরও বলেছেন, ৫০বছরের বেশি ব্যক্তিদের টিকাকরণের প্রক্রিয়া মার্চে শুরু হবে।

    Published by:Simli Dasgupta
    First published: