করোনার কলার টিউন শুনে কান পচে গেল, বন্ধ করতে সরকারকে চিঠি বিধায়কের

প্রতীকী চিত্র৷

প্রসঙ্গত, কংগ্রেসের এই বিধায়কই বেশ কিছু দিন আরও একটি দাবি তুলে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন৷

  • Share this:

    #জয়পুর: ফোন করতে গেলেই করোনা সচেতনতার বার্তা শুনে শুনে কান পচে গিয়েছে! এবার তা বন্ধ করা হোক৷ কেন্দ্রীয় সরকারকে চিঠি লিখে এমনই দাবি জানালেন রাজস্থানের এক বিধায়ক৷ ওই বিধায়কের নাম ভরত সিং কুন্দনপুর৷ করোনা সংক্রমণ ছডাতে শুরু করার কিছুদিন পর থেকেই মোবাইলে ফোন করতে গেলেই একটি বিশেষ সচেতনতা বার্তা শোনানো হচ্ছে৷ কিছুদিন ধরে আনলক পর্বে কী কী সতর্কতা পালন করতে হবে, সেই সংক্রান্ত বার্তা দেওয়া হচ্ছে৷ কেন্দ্রীয় তথ্য এবং সম্প্রচার মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকরকে লেখা চিঠিতে কংগ্রেসের ওই বিধায়ক যুক্তি দিয়েছেন, গত চার মাস ধরে ফোন করতে গেলে একই কথা শুনে শুনে কান পচে গিয়েছে৷ তিনি আরও অভিযোগ করেছেন, ফোন করতে গেলেই করোনার বার্তা শোনাতে গিয়ে অনেকটা সময় চলে যাচ্ছে৷ ওই বিধায়কের মতে, করোনা নিয়ে মানুষের কাছে যা বার্তা পৌঁছনোর তা পৌঁছে গিয়েছে৷ এখন এই সচেতনতা বার্তার আর কোনও মানে হয় না৷ অবিলম্বে তা বন্ধ করা হোক৷

    প্রসঙ্গত, কংগ্রেসের এই বিধায়কই বেশ কিছু দিন আরও একটি দাবি তুলে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন৷ সেবার লকডাউনের মধ্যেই তিনি রাজস্থানে সমস্ত মদের দোকান খোলার দাবি জানিয়েছিলেন৷ তিনি এমনও যুক্তি দিয়েছিলেন, মদ্যপান করলে করোনা সংক্রমণের ভয় থাকে না৷ মদই করোনাকে শেষ করে দেবে৷

    বিধায়ক ভরত সিং কুন্দনপুর৷

    ভরত সিং কুন্দপুর রাজস্থানের কোটার সাঙ্গোদ বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক৷ অতীতে তিনি রাজস্থানের পঞ্চায়েতমন্ত্রীও ছিলেন৷

    মোবাইলে করোনার বার্তা নিয়ে প্রকাশ জাভড়েকরকে লেখা চিঠির প্রতিলিপি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং লোকসভার সচিবালয়েও পাঠিয়েছেন ওই কংগ্রেস বিধায়ক৷

     
    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: