কেন্দ্র রাজ্য সংঘাতের আবহেই পথে মমতা, মানুষকে সচেতন করতে আবার অভিনব মাইক প্রচার

লকডাউন পর্বে কিছুদিন বিরতির পর মানুষ কে সচেতন করতে আবার অভিনব মাইক প্রচার চালালেন মমতা। এদিন গাড়ি থেকেই মাইকে প্রচার করেন তিনি।

লকডাউন পর্বে কিছুদিন বিরতির পর মানুষ কে সচেতন করতে আবার অভিনব মাইক প্রচার চালালেন মমতা। এদিন গাড়ি থেকেই মাইকে প্রচার করেন তিনি।

  • Share this:

#কলকাতা: কেন্দ্র রাজ্য সংঘাতের আবহেই ফের রাস্তায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ।লকডাউন পর্বে কিছুদিন বিরতির পর মানুষ কে সচেতন করতে আবার অভিনব মাইক প্রচার চালালেন মমতা।  এদিন গাড়ি থেকেই মাইকে প্রচার করেন তিনি। সংগে কলকাতার নগরপাল অনুজ শর্মা। এদিন নবান্ন থেকে বেড়িয়ে প্রথমে রাজাবাজার য়ান মুখ্যমন্ত্রী। এর পর পার্ক সার্কাস সেভেন পয়েন্ট,  তিলজলা,  মাঠপুকুরে প্রচার সফর চালান মুখ্যমন্ত্রী । এরপর কালীঘাট এ সাফাই কর্মী দের মাস্ক ও গ্লাভস বিলি করেন মমতা।

এই সমস্ত অঞ্চলই একদিকে যেমন সংখ্যালঘু অধ্যুষিত এবং একই সঙ্গে ঘনবসতিপূর্ণ। এর মধ্যে রাজাবাজার অঞ্চলে ঢোকার অনেক আগেই মৌলালি তে আটকানো হয় সমস্ত প্রেসের গাড়ি। যারা মুখ্যমন্ত্রী র সফর কভার করছিলেন।যদিও করোনা অধ্যায়ের শুরু থেকেই হাসপাতাল থেকে বাজার, জনবসতিপূর্ণ অঞ্চল ঘুরে সচেতনতার কাজ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। যদিও মাঝখানে বেশ কিছুদিন নবান্ন থেকেই যাবতীয় কাজ চালাচ্ছিলেন মমতা।

এবার আবার রাস্তায়। এবং অবশ্যই কেন্দ্র রাজ্য সংঘাতের আবহেই। গতকালই এক প্রকার নিশ্চুপে রাজ্যে এসে পৌছায়,  কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল। কেন তাদের পাঠানো হলো,  তা নিয়ে ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে চাপান উতোর। য়া মংগলবার   অবধি গড়ায়। রাজ্য কেন কেন্দ্রের প্রতিনিধি দল কে সহায়তা করছেন না তা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে মংগলবারই চিঠি দেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিব অজয় ভাল্লা। য়দিও এ চিঠির প্রাপ্তিস্বীকার করে নি নবান্ন। একই সঙ্গে মহ্গলবার বিকেলে শহর পরিদর্শনে বের হয় কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল ও। আপাতত রাজ্যেই আছেন তারা। এই রকম একটি পরিস্থিতিতে মুখ্যমন্ত্রী আরো একবার কি এই বার্তা ই স্পষ্ট করতে চাইলেন যে এ রাজ্যের জন্য অন্য কারো অভিভাবকত্বের প্রয়োজন নেই। এ রাজ্য তিনিই পাহারা দিচ্ছেন। তিনিই সতর্ক করছেন মানুষ কে। তিনি এখন  রাস্তাতেই। এই বার্তাই কি দিল্লি কে আরো একবার দিতে চাইলেন মমতা ?

Sourav Guha

Published by:Elina Datta
First published: