corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা আক্রান্ত সন্দেহে এগোলেন না কেউ, বৃদ্ধকে হাসপাতালে ভর্তি করালেন মুখ্যমন্ত্রী

করোনা আক্রান্ত সন্দেহে এগোলেন না কেউ, বৃদ্ধকে হাসপাতালে ভর্তি করালেন মুখ্যমন্ত্রী

বৃহস্পতিবার নবান্নের সাংবাদিক সম্মেলনে বসে নিজের সাম্প্রতিক একটি অভিজ্ঞতার শেয়ার করে মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যের প্রবীণ নাগরিকদের দুদর্শার ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করেন ৷ মুখ্যমন্ত্রীর নিজের পাড়াতেই কয়েকদিন আগে একজন বৃদ্ধ অসুস্থ হয়ে পড়া সত্ত্বেও প্রতিবেশীরা কেউই সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসেননি ৷

  • Share this:

#কলকাতা: করোনায় সবথেকে করুণ পরিস্থিতি প্রবীণ নাগরিকদের ৷ করোনায় অমানবিক সমাজ অসুস্থ আত্মীয়দের থেকেই মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে, অপরিচিত বা পড়শিতো অনেক দূরের কথা ৷ এমন অবস্থায় সব থেকে সমস্যায় পড়েছেন বয়স্ক মানুষেরা ৷ বৃহস্পতিবার নবান্নের সাংবাদিক সম্মেলনে বসে নিজের সাম্প্রতিক একটি অভিজ্ঞতার শেয়ার করে মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যের প্রবীণ নাগরিকদের দুদর্শার ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করেন ৷ মুখ্যমন্ত্রীর নিজের পাড়াতেই কয়েকদিন আগে একজন বৃদ্ধ অসুস্থ হয়ে পড়া সত্ত্বেও প্রতিবেশীরা কেউই সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসেননি ৷ উপরন্ত করোনার কিছু উপসর্গ থাকায় অবস্থা আরও সঙ্গীন হয় ৷ বৃদ্ধের দুই মেয়ে অধ্যাপক ৷ তাদের মধ্যে একজন সাহায্যের জন্য মুখ্যমন্ত্রীর দ্বারস্থ হন ৷ ঘটনার কথা জানতে পেরেই তিনি সঙ্গে সঙ্গে ওই বৃদ্ধ করোনা রোগীর চিকিৎসার ব্যবস্থার জন্য কালীঘাট থানার পুলিশকে নির্দেশ দেন  ৷ পরে মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যোগে ও কালীঘাট থানার ওসি নিজে দায়িত্ব নিয়ে বৃদ্ধকে ভর্তি করেন হাসপাতালে ৷

ঘটনার উল্লেখ করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘ভাগ্যিস মেয়েটি আমার কাছে এসেছিল। এরকম অনেকেই সাহায্য পাচ্ছেন না। বিশেষ করে ফ্ল্যাটগুলোতে, আবাসনে প্রবীণ নাগরিকদের কেউ সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসছেন না। খুবই চিন্তার বিষয়।’ সামান্য অসুস্থ হলেও সাহায্যের অভাবে তা প্রাণঘাতী হয়ে উঠছে ৷ একা থাকেন যেসব বৃদ্ধ দম্পতি বা নিঃসঙ্গ প্রবীণ মানুষদের জন্য বিশেষ হেল্পলাইন চালুর কথা ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ একইসঙ্গে বৃদ্ধ নিঃসঙ্গ নাগরিকদের সাহায্যার্থে এগিয়ে আসতে প্রতিবেশীদেরও অনুরোধ জানান তিনি ৷ আবাসনগুলিতে বিশেষ কমিটি গড়ার ব্যাপারেও খোঁজ নিতে পুলিশকে নির্দেশ দেন তিনি ৷

বিশেষ হেল্পলাইন চালু ছাড়াও মুখ্যমন্ত্রী মুখ্যসচিব রাজীব সিনহাকে নির্দেশ দেন, যাতে আবাসন ও ফ্ল্যাটগুলিতে কমিটি গড়া হয়, যারা সেখানে থাকেন যেসব বয়স্ক মানুষ তাদের খোঁজ নেবে ৷ অনেকে হেল্পলাইন থাকা সত্ত্বেও অসুস্থ হয়ে পড়লে বয়সের কারণে এতটাই দুর্বল হয়ে যান যে ফোন করার ক্ষমতাও থাকে না ৷ সেক্ষেত্রে আবাসন, ফ্ল্যাটের এই কমিটিগুলি প্রয়োজনীয় জায়গায় ফোন করে ব্যবস্থা নেবে ৷ উ্ল্লেখ্য, এর আগেই রাজ্য সরকার মাল্টিপারপাস একটি কোভিড হেল্পলাইন নম্বর চালু করেছে ৷ মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, সপ্তাহে ৭দিনই ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকবে এই হেল্পলাইন। নম্বরটি হল 1800313444222 ৷ এখানে করোনা সংক্রান্ত যে কোনও ওষুধ, রাতবিরেতে অ্যাম্বুল্যান্স পাওয়া, সরকারি হাসপাতালে রোগী ভর্তির ক্ষেত্রে সমস্যা হলে এই নম্বরে ফোন করে জানানো যাবে। যে কোনও সময়ই মানুষ ফোন করে এই নম্বর থেকে সাহায্য পাবেন।

Published by: Elina Datta
First published: August 6, 2020, 7:37 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर