চিনের আসল করোনা চিত্র তুলে ধরেছিলেন, জেলকুঠুরির অন্ধকারে পচছেন এই চিনা নাগরিক

চিনা সাংবাদিক ঝাঙ জাং।

মে মাসের শুরুতে ঝাংকে বিবাদ লাগানো ও উস্কানি দেওয়ার অভিযোগে বাড়ি থেকে একপ্রকার বলপ্রয়োগ করে বের করে আনে চিনের পুলিশ বাহিনী।

  • Share this:

    #বেজিং: তাঁর 'অন্যায়' তিনি সৎ থাকতে চেয়েছিলেন নিজের পেশার প্রতি। দেশের করোনা পরিস্থিতির প্রকৃত চিত্রটা তুলে ধরতে চেয়েছিলেন গণমাধ্যমে। জুটেছে শাস্তি। মে মাস থেকে জেলকুঠুরিতে পড়ে পচছেন চিনা সাংবাদিক ঝাঙ জাং। অন্তত পাঁচ বছর কারাগারেই বন্দি থাকতে হবে তাঁকে।

    মে মাসের শুরুতে ঝাঙকে বিবাদ লাগানো ও উস্কানি দেওয়ার অভিযোগে বাড়ি থেকে একপ্রকার বলপ্রয়োগ করে বের করে আনে চিনের পুলিশ বাহিনী। ঝাঙ আইনজীবী হিসেবে কাজ করেছিলেন কিছুকাল। পরে তিনি সাংবাদিকতা করা শুরু করেন।

    সোমবার সামনে আসা অভিযোগপত্রটিতে দেখা যাচ্ছে, চিনের অভিযোগ নানা অনলাইন মাধ্যমে মিথ্যে তথ্য ছড়াচ্ছিলেন ঝাঙ। নানা ভিডিওয় ঝাঙ তুলে ধরছিলেন কোভিড ধস্ত চিনের প্রকৃত ছবিটা। আর সেই বার্তা ছড়িয়ে পড়ছিল উইচ্যাট, ট্যুইটার, ইউটিউবে। চিনা পুলিশের অভিযোগ, বিদেশি মিডিয়াগুলিতে একের পর এক সাক্ষাৎকারে মিথ্য়ে তথ্যও দিচ্ছিলেন ঝাঙ। ইউহান বিষয়ে তাঁর তুলে ধরা তথ্যগুলির সঙ্গে একমত হতে পারেনি সরকার। সেই কারণেই বলপ্রয়োগ করে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড।

    নেটওয়ার্ক অফ চাইনিজ হিউম্যান রাইটস ডিফেন্ডারস জানাচ্ছে, ঝাঙ তুলে ধরেছিলেন করোনা রোগীদের পরিবারগুলির দুরাবস্থার কথা। এর পর ১৪ মে ইউহান থেকেই নিখোঁজ হয়ে যান তিনি। পরে জানা যায়, ৬৪০ কিলোমিটার দূরে সাংহাইতে পুলিশ তাঁকে গ্রেফতার করেছে। আনুষ্ঠানিক ভাবে ১৯ জুন তাঁকে হেফাজতে নেয় পুলিশ। সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকে তিনি সুযোগ পান নিজের আইনজীবীর সঙ্গে কথা বলার। প্রতিবাদে অনশনও করেন তিনি।

    এর আগেও ২০১৮-২০১৯ সালে ঝাংকে হংকংয়ের প্রতিবাদীদের সমর্থন করার কারণে তুলে নিয়ে গিয়েছিল পুলিশ। সে সময় দু মাস তাঁকে বন্দি রেথেছিল চিন সরকার।

    Published by:Arka Deb
    First published: