• Home
  • »
  • News
  • »
  • coronavirus-latest-news
  • »
  • টিকিটের দাম ৬৩০, দিতে হচ্ছে ৮০০ টাকা!‌ পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরার পথেও চরম ভোগান্তি

টিকিটের দাম ৬৩০, দিতে হচ্ছে ৮০০ টাকা!‌ পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরার পথেও চরম ভোগান্তি

নিজের শেষ সম্বল জমা পুঁজি দিয়ে স্পেশাল ট্রেনের টিকিট জোগাড় করে শেষ অবধি ঘরে পৌঁছানো শ্রমিকেরা জানাচ্ছেন, সাহায্য তো দুরস্ত, উল্টে নিজের জায়গায় ফেরার জন্য তাদের থেকে অতিরিক্ত টাকা উসুল করা হয়েছে ৷

নিজের শেষ সম্বল জমা পুঁজি দিয়ে স্পেশাল ট্রেনের টিকিট জোগাড় করে শেষ অবধি ঘরে পৌঁছানো শ্রমিকেরা জানাচ্ছেন, সাহায্য তো দুরস্ত, উল্টে নিজের জায়গায় ফেরার জন্য তাদের থেকে অতিরিক্ত টাকা উসুল করা হয়েছে ৷

নিজের শেষ সম্বল জমা পুঁজি দিয়ে স্পেশাল ট্রেনের টিকিট জোগাড় করে শেষ অবধি ঘরে পৌঁছানো শ্রমিকেরা জানাচ্ছেন, সাহায্য তো দুরস্ত, উল্টে নিজের জায়গায় ফেরার জন্য তাদের থেকে অতিরিক্ত টাকা উসুল করা হয়েছে ৷

  • Share this:

    #লখনউ: ঘরে ফেরার লড়াই যেন শেষই হচ্ছে না পরিযায়ী শ্রমিকদের ৷ করোনা পরিস্থিতিতে দেশ জুড়ে লকডাউনের মাঝে পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করলেও তা নিয়ে সামনে আসছে একের পর অভিযোগ ৷ সম্প্রতি গুজরাতের সুরাত থেকে উত্তরপ্রদেশে ফেরত আসা একদল পরিযায়ী শ্রমিক দাবি করেছেন নির্ধারিত দামের অতিরিক্ত টাকা দিয়ে কাটতে হচ্ছে টিকিট ৷ ঘরে ফেরা ওই পরিযায়ী শ্রমিকদের অভিযোগ, ৬৩০ টাকার টিকিটের জন্য তাদের ৮০০ টাকা করে দিতে হয়েছে ৷

    কাজের টানে গুজরাতে পাড়ি ৷ লকডাউন শুরুর আগে অবধি মাথার ঘাম পায়ে ফেলে সেখানেই ছিল রুজিরুটির ব্যবস্থা ৷ কিন্তু করোনা সংক্রমণের সব বন্ধ ৷ নিজের শেষ সম্বল,জমা পুঁজি দিয়ে স্পেশাল ট্রেনের টিকিট জোগাড় করে ঘরে পৌঁছানো শ্রমিকেরা জানাচ্ছেন, সাহায্য তো দুরস্ত, উল্টে নিজের জায়গায় ফেরার জন্য তাঁদের থেকে অতিরিক্ত টাকা উসুল করা হয়েছে ৷ গুজরাতের সুরাত থেকে পণ্ডিত দীনদয়াল উপাধ্যায় স্টেশনে আসা শ্রমিক ট্রেনের যাত্রীরা জানিয়েছেন, রেলওয়ের ছাপানো টিকিটে ৬৩০ থাকা প্রিন্ট থাকলেও এই টিকিটের বদলে দিতে হয়েছে অতিরিক্ত টাকা ৷ এমনকি সরকারের তরফে রেলওয়ে স্টেশন পৌঁছনোর জন্য যে বাসের ব্যবস্থা ছিল তার জন্যেও দিতে হয়েছে ভাড়া ৷ পরিযায়ী শ্রমিকদের অভিযোগের এই ভিডিও সামনে আসতেই রীতিমতো বিতর্ক মাথাচাড়া দিয়েছে ৷

    এই প্রথম নয়, এর আগেও সুরাতেই পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি ফেরানোর জন্য টাকা চাওয়ার অভিযোগ উঠেছিল ৷ দাবি করা হয় ঘটনার সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন এক বিজেপি নেতা ৷ অতিরিক্ত টাকা নেওয়ার প্রতিবাদ করায় রীতিমতো চ্যালাকাঠ দিয়ে মেরে এক শ্রমিককে সম্পূর্ণ রক্তাক্ত করে দেওয়ারও অভিযোগ ওঠে ৷ উল্লেখ্য, শ্রমিক স্পেশাল ট্রেনের ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গেই ভাড়ার কথা বলা হলে দেশ জুড়ে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে ৷ কংগ্রেস প্রেসিডেন্ট সনিয়া গান্ধি পার্টি ফান্ড থেকে শ্রমিকদের ভাড়া দেওয়ার কথা বলেন ৷ শুধু কংগ্রেসই নয়, সমাজবাদী পার্টি সহ বাকি বিরোধী দলও শ্রমিকদের ঘরে ফেরার খরচ বহনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন ৷

    Published by:Elina Datta
    First published: