করোনা ভাইরাস

corona virus btn
corona virus btn
Loading

সামান্য ভুলে হতে পারে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া, ভ্যাকসিন বিতরণের পরিকল্পনা জানতে চেয়ে রাজ্যকে চিঠি কেন্দ্রের

সামান্য ভুলে হতে পারে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া, ভ্যাকসিন বিতরণের পরিকল্পনা জানতে চেয়ে রাজ্যকে চিঠি কেন্দ্রের
Photo- Representative

হিন্দুস্তান টাইমসের একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে চলতি মাসের ১৮ তারিখে রাজ্যগুলিকে লেখা একটি চিঠিতে জানানো হয়েছে যে, ভ্যাকসিন প্রদানের আনুষ্ঠানিক কাজগুলিকে শক্তিশালী করতে হবে এবং ভ্যাকসিন যাতে সুরক্ষিত থাকে সে বিষয়ে নজর রাখতে হবে।

  • Share this:

#কলকাতা: করোনায় কোন ভ্যাকসিন সঠিক ভাবে কাজ করবে তা এখনও স্পষ্ট ভাবে জানা যায়নি। পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে একাধিক ভ্যাকসিনের উপরে। তবে, ভ্যাকসিনের সবুজ সঙ্কেত খুব তাড়াতাড়ি মিলবে বলে আশাবাদী সকলে। আর ভ্যাকসিন মিললেই তা দেশের সবার মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়া হবে। কেন্দ্রীয় সরকারের কথা অনুযায়ী, করোনার ভ্যাকসিনের বেশ কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও থাকতে পারে। বিশেষ করে ভ্যাকসিন সুরক্ষিত ভাবে রাজ্যগুলিতে পৌঁছে দেওয়া ও সেখান থেকে সমস্ত জেলায় জেলায়, গ্রামে গ্রামে পৌঁছনো একটা বড় চ্যালেঞ্জ। এবং এর জন্য প্রয়োজন রাজ্যসরকারের সহযোগিতা। এ বার তাই সমস্ত রাজ্যসরকারের কাছে ভ্যাকসিন বিতরণের পরিকল্পনা চেয়ে চিঠি পাঠাল কেন্দ্রীয় সরকার। কী ভাবে ভ্যাকসিন বিতরণ করা যায়, কী কী পদ্ধতি অবলম্বন করা যেতে পারে সে সব বিষয়ে তাদের কাছ থেকে পরামর্শ চাওয়া হয়েছে।

হিন্দুস্তান টাইমসের একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে চলতি মাসের ১৮ তারিখে রাজ্যগুলিকে লেখা একটি চিঠিতে জানানো হয়েছে যে, ভ্যাকসিন প্রদানের আনুষ্ঠানিক কাজগুলিকে শক্তিশালী করতে হবে এবং ভ্যাকসিন যাতে সুরক্ষিত থাকে সে বিষয়ে নজর রাখতে হবে।

দেশে করোনা-আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় এক কোটি ছুঁই-ছুঁই। এই পরিস্থিতিতে কিছুদিন আগেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করে কেন্দ্রীয় সরকার। যে বৈঠকে ভ্যাকসিন আসার পরবর্তী অধ্যায়, তার ক্যাম্পেইন, সরবরাহ নিয়ে কথা হয়। সকলকেই এই ভ্যাকসিন দেওয়া হবে কি না তা নিয়েও আলোচনা হয় বৈঠকে। ভ্যাকসিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নিয়েও কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। জানা গিয়েছে, তার পরই রাজ্য সরকারের উদ্দেশে এই চিঠি পাঠায় কেন্দ্র। চিঠিতে রাজ্যগুলিকে ব্লক টাস্ক ফোর্স গঠনের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। যাতে ভ্যাকসিনের প্রস্তুতিতে কোনও খামতি না থাকে। কো-অর্ডিনেশনেও যেন সমস্যা না হয়।

এ দিকে, কেন্দ্রীয় সরকারের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রক ইতিমধ্যে ভ্যাকসিন সুরক্ষিত রাখার ও তা প্রদানের জন্য কয়েকটি প্রাথমিক পদক্ষেপ করা শুরু করে দিয়েছে। আরও কয়েকটি পদক্ষেপের প্রস্তুতি চলছে। পাশাপাশি সকলে যাতে ঠিক সময়ে ভ্যাকসিন পেয়ে যায়, সে ব্যাপারেও একাধিক পদক্ষেপ করা হবে। রাজ্যসরকারগুলিকে সে ক্ষেত্রে প্রস্তুত থাকতে বলা হচ্ছে। ভ্যাকসিন দেওয়ার পর যে কোনও মেডিকেল এমারজেন্সির জন্যও তৈরি থাকতে বলা হয়েছে। কারণ, এর আগেও সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, ভ্যাকসিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকতেই পারে। তবে, একাধিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও সুরক্ষাবিধি মেনে তবেই ভ্য়াকসিন প্রয়োগের সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলেও জানিয়েছে তারা।

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: November 28, 2020, 9:31 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर