corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা পরিস্থিতিতে শুধুমাত্র আগামী বছরের জন্যই সিলেবাসে কাটছাঁট, ব্যাখা CBSE বোর্ডের

করোনা পরিস্থিতিতে শুধুমাত্র আগামী বছরের জন্যই সিলেবাসে কাটছাঁট, ব্যাখা CBSE বোর্ডের

রাজনৈতিক তরজা-বিতর্কের মধ্যেই সিলেবাসে কাটছাঁটের ব্যাখা দিয়ে নয়া বিবৃতি জারি করল সিবিএসই বোর্ড ৷ তাতে স্পষ্টভাবে বোর্ড জানিয়েছে, ‘সিলেবাসে এই বদল শুধুমাত্র ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের জন্যই ৷ ’

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: করোনার জেরে CBSE’র পাঠ্যক্রমে কাটছাঁট। বাদ পড়েছে সিলেবাসের ৩০ শতাংশ ৷ কিন্তু, বেছে বেছে কেন নাগরিকত্ব, ধর্মনিরপেক্ষতার মতো অংশগুলি বাদ দেওয়া হল? সেই নিয়ে রাজনৈতিক তরজা তুঙ্গে। বিরোধীরা এর পিছনে শিক্ষায় গৈরিকীকরণের মতো গুরুতর অভিযোগ এনেছেন ৷ রাজনৈতিক তরজা-বিতর্কের মধ্যেই সিলেবাসে কাটছাঁটের ব্যাখা দিয়ে নয়া বিবৃতি জারি করল সিবিএসই বোর্ড ৷ তাতে স্পষ্টভাবে বোর্ড জানিয়েছে, ‘সিলেবাসে এই বদল শুধুমাত্র ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের জন্যই ৷ ’

করোনা আবহে নানা ইস্যুতেই রাজনীতির ময়দানে পারদ চড়েছে। এবার সিলেবাসে কাটছাঁট নিয়েও রাজনৈতিক তরজা তুঙ্গে। সেই পরিস্থিতিতে তড়িঘড়ি পাঠক্রমে বদল নিয়ে বিবৃতি জারি বোর্ডের ৷ তাতে বলা হয়েছে, ‘করোনা পরিস্থিতিতে পাঠক্রমের বোঝা কমাতেই ৩০ শতাংশ অর্থাৎ প্রায় ১৯০টি বিষয়ে নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর সিলেবাসে বদল আনা হয়েছে ৷  যদিও এই ব্যবস্থা এককালীন ৷ শুধুমাত্র ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে পড়ুয়াদের এটি পড়ানো হবে না ৷’  একইসঙ্গে সিবিএসই বোর্ড বিবৃতিতে স্পষ্টভাবে জানিয়েছে, বাদ পড়া অধ্যায়গুলিতে পরীক্ষায় কোনও প্রশ্ন আসবে না ৷

বোর্ড এদিন নিজের বিবৃতি আরও জানিয়েছে, সিলেবাসে বদলের পর স্কুলগুলিকে পড়াশোনা এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য এনসিইআরটি-র তৈরি বিকল্প অ্যাকাডেমিক ক্যালেন্ডার অনুসরণ করতে নির্দেশ বোর্ডের ৷ মিডিয়াতে সিলেবাসে বদল ভুলভাবে পরিবেশিত হয়েছে বলেও উল্লেখ করা হয়৷ কারণ এই অধ্যায়গুলি বরাবরের জন্য নয়, এই একবছরের জন্যেই পড়ুয়াদের পড়ানো হবে না৷ তবে বাদ পড়া চ্যাপ্টার যদি পাঠ্যক্রমের অন্তর্ভুক্ত কোনও অংশ বোঝার ক্ষেত্রে জরুরি হয়, তবে অবশ্যই পড়ুয়াদের তা বুঝিয়ে দেওয়া হবে কিন্তু তা সারা বছরের মূল্যায়ন বা চূড়ান্ত পরীক্ষায় থাকবে না বলে স্পষ্ট করেছে বোর্ড ৷ সিবিএসই-র দাবি, অতিমারির আক্রমণে এ বছর পড়ানোর সময় মিলছে কম। সে কথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত।

মঙ্গলবার মানবসম্পদ উন্নয়নমন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল নিশঙ্ক ট্যুইট করে জানান, ‘প্রত্যেক বিষয়ের মূল ধারণাগুলিকে কাটছাঁট না-করেও ৩০% পর্যন্ত পাঠ্যক্রম কমানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’ রাষ্ট্রবিজ্ঞান থেকে বাদ পড়ে ধর্মনিরপেক্ষতা, নাগরিকত্ব, জিএসটি, বিদেশ নীতির মতো চ্যাপ্টার  ৷ এরপরই বাদ পড়া বিষয়ের তালিকা জানা যেতেই চাঞ্চল্য ছড়ায় বিরোধীদের মধ্যে ৷ অভিযোগ ওঠে মোদি সরকার রাষ্ট্রবাদী মতাদর্শ চাপিয়ে দিতে চায় ৷ সোচ্চার হয়ে ওঠেন বিরোধীরা ৷ ট্যুইট করে সিলেবাস বদলের কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের তীব্র প্রতিবাদ করেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও ৷

Published by: Elina Datta
First published: July 8, 2020, 10:52 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर