• Home
  • »
  • News
  • »
  • coronavirus-latest-news
  • »
  • হাইকোর্টের নির্দেশে চাপে অভিভাবকরা, ১৫ অগাস্টের মধ্যে দিতে হবে বকেয়া স্কুল ফি

হাইকোর্টের নির্দেশে চাপে অভিভাবকরা, ১৫ অগাস্টের মধ্যে দিতে হবে বকেয়া স্কুল ফি

কেন্দ্রের তরফে বলা হয়েছে স্কুল সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলায় অনুমতি দিলেও গাইডলাইনে স্পষ্টভাবে বলা হয়েছে, স্কুল বা কলেজ খোলার আগে সংশ্লিষ্ট ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে পরিস্থিতির সার্বিক বিচার করেই নেওয়া হবে সিদ্ধান্ত ৷ একই সঙ্গে পড়ুয়ারা স্কুল বা কলেজে এসে সশরীরে ক্লাস করবেন কিনা সে ব্যাপারে অভিভাবকের অনুমতি আবশ্যক ৷ অভিভাবকের লিখিত অনুমতি ছাড়া কোনও পড়ুয়া স্কুল বা কলেজে এসে ক্লাস করতে পারবে না ৷

কেন্দ্রের তরফে বলা হয়েছে স্কুল সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলায় অনুমতি দিলেও গাইডলাইনে স্পষ্টভাবে বলা হয়েছে, স্কুল বা কলেজ খোলার আগে সংশ্লিষ্ট ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে পরিস্থিতির সার্বিক বিচার করেই নেওয়া হবে সিদ্ধান্ত ৷ একই সঙ্গে পড়ুয়ারা স্কুল বা কলেজে এসে সশরীরে ক্লাস করবেন কিনা সে ব্যাপারে অভিভাবকের অনুমতি আবশ্যক ৷ অভিভাবকের লিখিত অনুমতি ছাড়া কোনও পড়ুয়া স্কুল বা কলেজে এসে ক্লাস করতে পারবে না ৷

ডিভিশন বেঞ্চের অন্তর্বর্তী নির্দেশ, বকেয়া ফি জমা না দিলে, অনলাইন ক্লাস ও পরীক্ষায় কোন পড়ুয়া বসতে পারবে তা ঠিক করবে বেসরকারি স্কুলগুলি।

  • Share this:

    #কলকাতা: ১৫ অগাস্টের মধ্যে বকেয়া স্কুল ফির ৮০ শতাংশ মেটাতে হবে। না হলে অনলাইন ক্লাস নিয়ে নিজেদের মতো করে পদক্ষেপ করতে পারবে বেসরকারি স্কুলগুলি। কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে চাপে অভিভাবকরা। আর বাড়তি সময় নয়। ১৫ অগাস্টের মধ্যে বকেয়া স্কুল ফির ৮০ শতাংশ দিতে হবে অভিভাবকদের। সোমবার জানিয়ে দিল কলকাতা  হাইকোর্ট। লকডাউন  থেকে আনলকে স্কুল বন্ধ। তাও কেন কম্পিউটার ক্লাস, ল্যাবরেটরি, গাড়িসহ একাধিক ক্ষেত্রে ফি চাইছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। এরই বিরুদ্ধে লাগাতার স্কুলের সামনে বিক্ষোভ করেন অভিভাবকরা। ফি মকুবের আর্জি জানিয়ে হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা করেন বিনীত রুইয়া। সেই মামলায় ১১২টি স্কুলের নাম ছিল। এদিন বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় ও মৌসুমী ভট্টাচার্যের ডিভিশন বেঞ্চের অন্তর্বর্তী নির্দেশ, বকেয়া ফি জমা না দিলে, অনলাইন ক্লাস ও পরীক্ষায় কোন পড়ুয়া বসতে পারবে তা ঠিক করবে বেসরকারি স্কুলগুলি। আপাতত ৪৫টি স্কুলের ক্ষেত্রে এই নির্দেশ কার্যকর। মামলার নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত বকেয়া  ফি না দেওয়ার আবেদন এদিন মঞ্জুর করেনি কলকাতা হাইকোর্ট। সোমবারের শুনানিতে অ্যাডভোকেট  জেনারেল কিশোর দত্ত জানান, রাজ্য সরকার ইতিমধ্যেই ফি মকুবের অনুরোধ জানিয়ে সার্কুলার জারি করেছে। ফি দিতে না পারলেও অন লাইন ক্লাস থেকে বঞ্চিত না করার আর্জিও হলফনামায় জানিয়েছে রাজ্য। যদিও সেই নিয়ে কোনও মন্তব্য করেনি আদালত। বিচারাধীন মামলা সংক্রান্ত বিষয় সোশাল সাইটে পোস্ট করা নিয়ে এদিন মামলাকারীকে সতর্ক করে হাইকোর্ট। সব মিলিয়ে আদালতের নির্দেশে এখন চাপে অভিভাবকরা।

    Published by:Elina Datta
    First published: