হোম /খবর /দক্ষিণবঙ্গ /
দুঃস্থ পরিবারদের হাতে চাল-ডাল-আলু তুলে দিলেন প্রাক্তন তৃণমূল কাউন্সিলর

বাড়ি-বাড়ি গিয়ে দুঃস্থ পরিবারদের হাতে চাল-ডাল-আলু তুলে দিলেন প্রাক্তন তৃণমূল কাউন্সিলর

লকডাউনে সব থেকে বেশি সঙ্কটে পড়েছেন দুঃস্থ পরিবারের মানুজন

  • Share this:

#বর্ধমান: লকডাউনে সব থেকে বেশি সঙ্কটে পড়েছেন দুঃস্থ পরিবারের মানুজন। সবাই-ইগৃহবন্দি। কাজে যেতে না পারছেন না। উপার্জন পুরোপুরি বন্ধ। এক টানা তিন সপ্তাহ লকডাউনের কথা শুনেছেন ঠিকই,  কিন্তু অর্থের অভাবে চাল-ডাল-তেল-চিনি মজুত করতে পারেননি। ঘরে কিনে রাখতে পারেননি যথেষ্ট কাঁচা সবজিও। বৃহস্পতিবার বর্ধমান শহরের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের দুঃস্থ পরিবারগুলির পাশে দাঁড়ালেন স্থানীয় ওয়ার্ডের প্রাক্তন তৃণমূল কাউন্সিলর শিখা দত্ত সেনগুপ্ত। এদিন এলাকায় ঘুরে ঘুরে সেই মানুষদের চাল, আলু-সহ বিভিন্ন সামগ্রী বিতরণ করেন তিনি। দিলেন হাত ধোওয়ার সাবানও। প্রাক্তন কাউন্সিলরের কাছে কয়েকদিনের খাওয়ার রসদ পেয়ে খুশি তাঁরা।

লকডাউন। তাই এক সঙ্গে অনেকজনকে সামিল করা যাবে না। কাজেই জনা কয়েককে সঙ্গে নিয়েই ঘরে বসে প্যাকেটে ভরলেন চাল-ডাল-আলু। এক-একটি প্যাকেটে  ২কেজি চাল, পরিমাণমতো ডাল, ২ কেজি করে আলু।  এরপর আর্থিক দিক থেকে পিছিয়ে পড়া দিন আনি দিন খাই পরিবারগুলির কাছে পৌঁছে দিলেন সেই প্যাকেট। বাড়ি-বাড়ি ঘুরে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে দুঃস্থ পরিবারদের হাতে চাল-ডাল-আলু তুলে দেওয়ার পাশাপাশি তাঁদের ভালমন্দের খোঁজখবরও নিলেন। ঘর থেকে খুব প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বের হতে নিষেধ করলেন। বারে বারে সাবান জলে হাত ধোওয়ার পরামর্শ দিলেন। বাসিন্দারা প্রয়োজনের চাল ডাল আলু পেয়ে আপ্লুত। তাঁরা বললেন, 'ছোট ছোট ছেলেমেয়েদের কী খেতে দেব ? এই  ভেবে চিন্তায় ছিলাম। আপাতত দু মুঠো ভাত পেটে পড়বে।'

বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপিকা তথা বিভাগীয় প্রধান প্রাক্তন কাউন্সিলর শিখা দত্ত সেনগুপ্ত বললেন, 'অর্থ যাঁদের আছে তাঁরা প্রয়োজন মতো চাল ডাল সবজি কিনতে পারছেন। কিন্তু গরিব মানুষদের এই পরিস্থিতির মোকাবিলা করা খুবই কঠিন। চরম সমস্যার মধ্যে তাঁরা দিন কাটাচ্ছেন। তাই তাঁদের কষ্ট কিছুটা লাঘব করতেই এই কর্মসূচি। আশা করছি আরও অনেকে তাঁদের পাশে এসে দাঁড়াবেন।'

Saradindu Ghosh

Published by:Rukmini Mazumder
First published:

Tags: Burdwan ex tmc councillor, Coronavirus