• Home
  • »
  • News
  • »
  • coronavirus-latest-news
  • »
  • ভ্যাকসিন এলে প্রথমে তা পাবেন কারা, নির্ধারণে প্রশাসনিক বৈঠক বর্ধমানে

ভ্যাকসিন এলে প্রথমে তা পাবেন কারা, নির্ধারণে প্রশাসনিক বৈঠক বর্ধমানে

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, ভ্যাকসিন এলে তা অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে কোভিড যোদ্ধাদের দেওয়া হবে।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, ভ্যাকসিন এলে তা অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে কোভিড যোদ্ধাদের দেওয়া হবে।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, ভ্যাকসিন এলে তা অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে কোভিড যোদ্ধাদের দেওয়া হবে।

  • Share this:

#বর্ধমান: করোনার সংক্রমণ অব্যাহত। তার মাঝেই ভ্যাকসিন এলে তা কিভাবে বন্টন করা হবে সে ব্যাপারে প্রশাসনিক স্তরে আলোচনা শুরু হয়ে গেল। করোনার ভ্যাকসিন এলে প্রথম সারির কোভিড যোদ্ধাদের তা আগে তা দেওয়া হবে বলে ইতিমধ্যেই সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্বাস্থ্য দফতর। সে ব্যাপারে ইতিমধ্যেই জেলা পর্যায়ে কমিটিও তৈরি হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যায় সে ব্যাপারে গুরুত্বপূর্ণ প্রশাসনিক বৈঠক হল বর্ধমানে জেলাশাসকের কনফারেন্স হলে।

বৈঠকে জেলা শাসক মহম্মদ এনাউর রহমান, জেলার পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখোপাধ্যায়, জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক প্রণবকুমার রায় সহ পদস্থ প্রশাসনিক আধিকারিকরা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে ভ্যাকসিন এলে তা কিভাবে বন্টন হবে তা নিয়ে আলোচনা হয়। ইতিমধ্যেই কোভিড যোদ্ধাদের তালিকা তৈরি করেছে স্বাস্থ্য দফতর। সেই তালিকায় চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীরা রয়েছেন। বৈঠকের শেষে জেলাশাসক বলেন, এ ব্যাপারে রাজ্য সরকারের সুনির্দিষ্ট গাইড লাইন রয়েছে। তা মেনে কমিটিও গঠন করা হয়েছে। এদিন সেই কমিটির প্রাথমিক বৈঠক হয়েছে।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, ভ্যাকসিন এলে তা অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে কোভিড যোদ্ধাদের দেওয়া হবে। ইতিমধ্যেই সেই যোদ্ধাদের বিস্তারিত তালিকা তৈরি করছে স্বাস্থ্য দফতর। রাজ্যের নির্দেশ মেনেই সেই এই তালিকা করা হয়েছে। ব্লক স্তর থেকে জেলা পর্যায় পর্যন্ত চিকিৎসক ও স্বাস্থ্য়কর্মীদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। বেসরকারি ক্ষেত্রেও যে সব চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা রয়েছেন তাঁদেরও বিস্তারিত তালিকা তৈরি করা হয়েছে। করোনার বিরুদ্ধে সামনে থেকে লড়াই চালাচ্ছেন চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীরা। এই অতিমারি পরিস্থিতিতে অনেক চিকিৎসক ও নার্স স্বাস্থ্যকর্মী দিন রাত এক করে কাজ করে চলেছেন। পরিষেবা দিতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তাঁদের অনেকে। রাজ্যের অন্যান্য এলাকার মতোই এ জেলাতেও চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের করোনায় মৃত্যু ঘটেছে। একইভাবে রোদ জল মাথায় নিয়ে সামনে থেকে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন পুলিশ কর্মী অফিসাররাও। তাঁদেরও অনেকে আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যুও হয়েছে একাধিক পুলিশ কর্মীর। ভ্যাকসিন এলে তা যাতে দ্রুত ও যথাযথভাবে বন্টন করা যায় তা নিশ্চিত করতেই বিস্তারিত তালিকা তৈরি হচ্ছে। সেসব বিষয়েই আলোচনা হয় এদিনের বৈঠকে।

Published by:Arka Deb
First published: