corona virus btn
corona virus btn
Loading

চূড়ান্ত অমানবিক! করোনা সংক্রমণ সন্দেহে মৃতদেহ সরানো হল জঞ্জালের গাড়িতে, দেশ জুড়ে নিন্দার ঝড়

চূড়ান্ত অমানবিক! করোনা সংক্রমণ সন্দেহে মৃতদেহ সরানো হল জঞ্জালের গাড়িতে, দেশ জুড়ে নিন্দার ঝড়

বুধবার চরম অমানবিক ঘটনার সাক্ষী রইলেন উত্তরপ্রদেশের বলরামপুর শহরের বাসিন্দারা ।

  • Share this:

#লখনউ: মৃত ব্যক্তির দেহ জঞ্জালের গাড়িতে তুলে আনা হল থানায় । বুধবার চরম অমানবিক ঘটনার সাক্ষী রইলেন উত্তরপ্রদেশের বলরামপুর শহরের বাসিন্দারা । ইতিমধ্যেই নোংরার গাড়িতে মৃতদেহ তুলে নিয়ে যাওয়ার ছবি এবং ভিডিও দাবানলের মতো সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে । দেশ জুড়ে নিন্দার ঝড় উঠেছে ।

সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, পুলিশের উপস্থিতিতে পুরসভার  তিন সাফাইকর্মীরা মৃতদেহ প্লাস্টিকে মুড়ে জঞ্জাল ফেলার গাড়িতে তুলছেন । সেই অবস্থায় মৃতদেহ নিয়ে যাওয়া হয় স্থানীয় থানায় । ভিডিও ঘিরে বিতর্ক তৈরি হওয়ায় তিন পুলিশকর্মী এবং চারজন পুরকর্মীকে সাসপেন্ড করেছে প্রশাসন । ভিডিওগুলিতে দেখা গিয়েছে, মৃতদেহ মাটিতে পড়ে রয়েছে । তার পাশে পড়ে রয়েছে একটি জলের বোতল । দেহের পাশে রয়েছেন এক জন পুলিশকর্মী , আর তার পাশে একটি জঞ্জাল ফেলার গাড়ি । জানা গিয়েছে, মৃত্যুর পরে অ্যাম্বুলেন্স ডাকা হয়েছিল  দেহ নিয়ে যাওয়ার জন্য । কিন্তু শেষ পর্যন্ত অ্যাম্বুলেন্স যেতে রাজি হয়নি । ফলে করোনা আক্রান্ত সন্দেহে মৃতদেহ জঞ্জালের গাড়িতেই তোলা হয় ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত মহম্মদ আনওয়ার (৪২) বলরামপুরের বাসিন্দা । বৃহস্পতিবার কাজে তিনি স্থানীয় সরকারি অফিসে গিয়েছিলেন । সেখানেই আচমকা অসুস্থ হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন । মৃত্যু হয় তাঁর । জেলার পুলিশ সুপার দেবাঞ্জন ভার্মা এই ঘটনাকে অমানবিক ও সংবেদনশীল বলে ব্যাখ্যা করেন । তিনি বলেন, "করোনার মতো অতিমারি নিয়ে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক রয়েছে। কিন্তু ওই কর্মীরা অমানবিক কাজ করেছেন। পুলিশ এবং কর্পোরেশনের কর্মীদের তরফে বড় ভুল হয়েছে। যদি করোনাই সন্দেহ করা হবে, তা হলে পিপিই নিয়ে যাওয়া উচিত ছিল।'' তবে কী কারণে মহম্মদ আনওয়ারের মৃত্যু হয়েছে, তা স্পষ্ট নয় ।

Published by: Shubhagata Dey
First published: June 11, 2020, 8:00 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर