corona virus btn
corona virus btn
Loading

বর্ধমান মেডিকেলে করোনার নমুনা সংগ্রহের জন্য চালু কিয়স্ক

বর্ধমান মেডিকেলে করোনার নমুনা সংগ্রহের জন্য চালু কিয়স্ক

আজ রবিবার থেকে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও ক্যামরি করোনা হাসপাতালে করোনা পরীক্ষার নমুনা সংগ্রহের কিয়স্ক চালু হল।

  • Share this:

#বর্ধমান: আজ, রবিবার থেকে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনার নমুনা সংগ্রহের জন্য কিয়স্ক চালু হল। একই ভাবে কিয়স্কের মাধ্যমে করোনা পরীক্ষার নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে বর্ধমান শহর লাগোয়া গাঙপুরে দুই নম্বর জাতীয় সড়কের পাশের করোনা হাসপাতালে। কারা সেই সুবিধা পাচ্ছেন তা নিয়ে জেলা জুড়ে শুরু হয়েছে জল্পনা। যে কেউ কি সেই কিয়স্কে গিয়ে নমুনা জমা দিয়ে শরীরে করোনার সংক্রমণ দেখা দিয়েছে কিনা তার পরীক্ষা করিয়ে নিতে পারবেন?

জেলা স্বাস্থ্য দফতর জানিয়েছে, আজ রবিবার থেকে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও ক্যামরি করোনা হাসপাতালে করোনা পরীক্ষার নমুনা সংগ্রহের কিয়স্ক চালু হল। তবে যে কেউ সেখানে গিয়ে নমুনা জমা দেবেন আর পরীক্ষা হয়ে যাবে তা কিন্তু নয়। সেখানে ব্যক্তিগতভাবে কারোর নমুনাই নেওয়া হবে না। জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক প্রণব কুমার রায় বলেন, স্বাস্থ্য কর্মীদের সুরক্ষার কথা ভেবেই এই কিয়স্ক চালু করা হয়েছে। সবকিছু চলছে স্বাস্থ্য দফতরের গাইড লাইন মেনেই। ডাক্তারবাবুরা কোনও রোগীর নমুনা পরীক্ষার পরামর্শ দিলে তবেই তাঁর নমুনা পরীক্ষার জন্য কিয়স্কের মাধ্যমে সংগ্রহ করা হবে।

বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রয়েছে করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ড। তেমনই আইসোলেশন ওয়ার্ড রয়েছে কাটোয়া ও কালনা মহকুমা হাসপাতালেও। বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আউটডোরে জ্বর সর্দি নিয়ে কেউ চিকিৎসা করাতে গেলে তাদের অন্যান্য রোগীদের থেকে আলাদা করে দেওয়া হচ্ছে। তাদের দেখা হচ্ছে ফ্লু ইউনিটে। সেখানে কেউ করোনা আক্রান্ত মনে হলে তাঁদের নমুনা সংগ্রহ করে এতদিন পরীক্ষার জন্য পাঠানো হচ্ছিল। এবার সেই নমুনা কিয়স্ক থেকে সংগ্রহ করে। কাটোয়া, কালনা মহকুমা হাসপাতাল থেকেও নিয়মিত নমুনা আসছে। সেই নমুনাও আজ থেকে জমা পড়বে এই বিশেষ কিয়স্কে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, করোনার নমুনা সংগ্রহের কাজে যুক্ত কর্মীদের সাবধানতা গ্রহণ করা জরুরি। নাহলে তাদের আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা থেকে যায়। সেজন্যই এই কিয়স্কের ব্যবস্থা। একই রকম কিয়স্ক তৈরি করা হয়েছে দু’নম্বর জাতীয় সড়কের পাশে  করোনা হাসপাতালেও।

শরদিন্দু ঘোষ

First published: May 3, 2020, 2:08 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर