করোনা ভাইরাস

corona virus btn
corona virus btn
Loading

‘‌আপনার জন্য চিন্তা হয়, সাবধানে থাকবেন’‌, মমতাকে বললেন অভিজিৎ বিনায়ক

‘‌আপনার জন্য চিন্তা হয়, সাবধানে থাকবেন’‌, মমতাকে বললেন অভিজিৎ বিনায়ক

‘‌আমি তো ঘরের মধ্যে থেকে কাজ করছি। আপনাকে অনেক ঘুরতে হচ্ছে। আপনি সাবধানে থাকবেন। আপনার জন্য চিন্তা হয়।

  • Share this:

#‌কলকাতা:‌ মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন, তিনি করোনা মোকাবিলায় গ্লোবাল অ্যাডভাইজারি কমিটি তৈরি করেছেন আর সেই দলে পরামর্শদাতা হিসাবে থাকবেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়। মঙ্গলবার সেই আলোচনাতেই বসলেন নোবেলজয়ী। ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে এদিন সাংবাদিকদের সামনে নিজের মন্তব্য তুলে ধরেন অভিজিৎ। তিনি বলেন, ‘‌আমাদের এখন আতঙ্কিত না হয়ে সতর্ক থাকতে হবে। দেখতে হবে বাজারে সবাই যাতে মাস্ক পরেন।‌’‌

এদিন বাজার পরিচালনার বিষয়েও একটি বিশেষ উপায়ের কথা বলেছেন অভিজিৎ। তিনি জানান, প্রতিটি বাজারের মুখে যদি একটি করে হাত ধোয়ার জায়গা থাকে তাহলে ভাল হয়। সব জায়গায় হ্যান্ড স্যানিটাইজার না থাকলেও যদি সামান্য সাবান ও হাত ধোওয়ার জল থাকে, তাহলেই কাজ হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। তবে সবাইকে মাস্ক পরতে বলেন অভিজিৎ। দরকার হলে হাতে তৈরি মাস্কও ব্যবহার করা যেতে পারে বলে মনে করছেন তিনি।

অভিজিৎ এদিনও মনে করিয়ে দেন, সোশ্যাল ডিস্ট্য়াংসিংয়ের একটা গুরুত্ব রয়েছে। সেই কারণে গণ্ডি কেটে যদি কাজ না হয়, তাহলে ইঁট দিয়ে এলাকা ভাগ করে দেওয়া যেতে পারে। অনেক দেশেই এভাবে কাজ করা হচ্ছে।

এছাড়াও এদিন আশা কর্মীদের কাজে লাগিয়ে টেস্ট ও করোনা ট্র‌্যাকিংয়ের বিষয়টি খেয়াল রাখতে বলেন অভিজিৎ। তিনি উদাহরণ দিয়ে বলেন, যদি কোথাও দেখা যায়, একসঙ্গে অনেক লোকের সর্দি, কাশি হচ্ছে, তাহলে সেই অংশে গিয়ে যেন টেস্ট করানো হয়। সেখানে পৌঁছে গিয়ে স্বাস্থ্যকর্মীরা যদি টেস্ট করান, তাহলে আগে থেকে রোগ ছড়িয়ে পড়া আটকে দেওয়া যেতে পারে। অর্থাৎ, একটি রিপোর্টিং স্ট্রাকচার তৈরি করতে হবে। যে স্ট্রাকচার মেনে কাজ করতে হবে। ফলে সরকারের কাছে সহজে এই বিষয়ে রিপোর্ট এসে পৌঁছে যাবে।

আর সব শেষে অভিজিৎ বিনায়ক বন্দোপাধ্যায় মুখ্যমন্ত্রীর স্বাস্থ্য সম্পর্কেও খোঁজ নেন। মুখ্যমন্ত্রী অভিজিৎকে সাবধানে থাকার কথা বললে অভিজিৎ বলেন, ‘‌আমি তো ঘরের মধ্যে থেকে কাজ করছি। আপনাকে অনেক ঘুরতে হচ্ছে। আপনি সাবধানে থাকবেন। আপনার জন্য চিন্তা হয়।'

Published by: Uddalak Bhattacharya
First published: April 7, 2020, 6:48 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर