corona virus btn
corona virus btn
Loading

লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ, করোনার থাবা কামারহাটি সাগর দত্ত মেডিক্যাল কলেজের নার্স-সাফাই কর্মীর শরীরে

লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ, করোনার থাবা কামারহাটি সাগর দত্ত মেডিক্যাল কলেজের নার্স-সাফাই কর্মীর শরীরে
ফাইল ছবি

করোনা আক্রান্ত দিদি কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের নার্স এবং ভাই চুক্তিভিত্তিক সাফাই কর্মী।

  • Share this:

#কলকাতাঃ কামারহাটি সাগর দত্ত মেডিকেল কলেজ উত্তর শহরতলির অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ হাসপাতাল। বেলঘড়িয়া, দক্ষিণেশ্বর, সোদপুর, খড়দা, ব্যারাকপুর-সহ বিস্তীর্ণ এলাকার মানুষের চিকিৎসার অন্যতম ভরকেন্দ্র এই হাসপাতাল। করোনা আতঙ্কের মাঝেও এই সাগর দত্ত হাসপাতালে চিকিৎসা পরিষেবা অনেকটাই ঠিকঠাক চলছিল। কিন্তু বৃহস্পতিবার পরিস্থিতি এক লহমায় বদলে গেল। কামারহাটি ব্যানার্জি বাগান এলাকার একই পরিবারের দু'জন মারহাটি সাগর দত্ত মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কর্মরত। দিদি কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের নার্স এবং ভাই চুক্তিভিত্তিক সাফাই কর্মী।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বক্তব্য প্রায় দিন পাঁচেক হল এই নার্স জ্বর নিয়ে বাড়িতেই ছিলেন। কাউকে কোনও কিছু জানাননি। মঙ্গলবার জ্বরের সঙ্গে শ্বাসকষ্ট শুরু হয় হওয়ায় তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং তার সঙ্গে তার ভাইকে ভর্তি করানো হয়। দুজনের লালারসের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। সেই রিপোর্ট বৃহস্পতিবার আসতেই মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ে। ভাই-বোন দুজনের রিপোর্টই  করোনা পজেটিভ। দু'জনকেই টালিগঞ্জ এমআর বাঙুর হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে।

অন্যদিকে, নার্স এবং সাফাই কর্মী ভাই-বোন করোনা আক্রান্ত হওয়ার পরই সাগর দত্ত হাসপাতালে ৩৬ জনকে কোয়ারেন্টাইন  করার সিদ্ধান্ত হয়। খোদ হাসপাতাল সুপার, কুড়ি জন চিকিৎসক এবং রেডিওলজি বিভাগ ও কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের ১৫ জন কর্মীকেও হোম কয়ারেন্টাইন বা গৃহ পর্যবেক্ষণে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। হাসপাতালের রেডিওলজি বিভাগ এবং কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগ বন্ধ করে দেওয়া হয়।

এদিকে এই ঘটনায় সাগর দত্ত হাসপাতালে নিমেষে চূড়ান্ত আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।  হাসপাতালে অন্যান্য চিকিৎসক-নার্স স্বাস্থ্য কর্মীদের মধ্যে আতঙ্ক দানা বেঁধেছে। তবে এই হাসপাতালে রোগী পরিষেবা কোনরকম ব্যাহত হবে না বলে জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। রাজ্যের বিভিন্ন চিকিৎসক সংগঠন ওয়েস্ট বেঙ্গল ডক্টরস ফোরাম, সার্ভিস ডক্টরস ফোরাম, অ্যাসোসিয়েশন অফ হেলথ সার্ভিসেস ডক্টরস, ডক্টর ফর পেশেন্টস বা ডোপা এবং নার্সেস ইউনিটি-সহ নার্সদের কয়েকটি সংগঠন যেভাবে চিকিৎসক-নার্স স্বাস্থ্যকর্মীদের হাসপাতালগুলিতে কাজ করতে হচ্ছে তা নিয়ে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

ABHIJIT CHANDA

First published: April 30, 2020, 10:21 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर