রূপান্তরকামীদের জন্য স্বতন্ত্র টিকা নেওয়ার ব্যবস্থা, চোখ খুলে দিল অসম

টিকা পাচ্ছেন তৃতীয় নিবাসের এক রূপান্তরকামী সদস্য।

অসম প্রশাসন সূত্রে খবর, আগামী দিনে জেলায় জেলায় একটি করে এই ধরনের রূপান্তরকামীদের টিকাকরণ কেন্দ্র গড়ে তোলা হবে।

  • Share this:

    #কলকাতা: নজির সৃষ্টি করল অসম। অসমই দেশের প্রথম রাজ্য যেখানে রূপান্তরকামীদের টিকাকরণে জন্য বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়ার কথা ভাবল সেই রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর। গুয়াহাটিতে শুক্রবার থেকেই চালু হয়ে গেল এই টিকাকেন্দ্র। প্রথম দিনেই টিকা নিলেন অন্তত ৪০ জন রূপান্তরকামী। অসম প্রশাসন সূত্রে খবর, আগামী দিনে জেলায় জেলায় একটি করে এই ধরনের রূপান্তরকামীদের টিকাকরণ কেন্দ্র গড়ে তোলা হবে।

    অসম ট্রান্সজেন্ডার ওয়েলফেয়ার বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান স্বাতী বিধান বড়ুয়া এই প্রসঙ্গে বলেন, আমাদের সদস্যরা বেশির ভাগই রাস্তায় কাজ করেন। অনেকেরই পেশা ভিক্ষে করা কাদেই রাস্তায় করোনার সংস্পর্শে আসার সম্ভাবনা রূপান্তরকামীদের খুবই বেশি। কিন্তু কোভিড সেফ হাউজগুলিতে তো রূপান্তরকামীদের জন্য কোনও আলাদা জায়গা নেই। আমি তাই স্বাস্থ্য দফতরে চিঠি লিখে জানাই টিকাকরণই রূপান্তরকামীদের বাঁচানোর একমাত্র পথ। আমরা ১৩ মে আবেদন করি। এবং একদিনের মধ্যেই সারা দেয় সরকার।

    ২০১১ সালের জনগণনা অনুযায়ী অসমে ১১ হাজার ৩৭৪ জন তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ রয়েছেন। গুয়াহাটিতে রয়েছেন ২০০০-এর বেশি রূপান্তরকামী। রূপান্তরকামীদের টিকাকরণে অনেক সময়েই সমস্যা হয়ে দাঁড়ায় ভোটার আই কার্ড বা আধার কার্ডের মতো নথির অভাব। আপাতত তৃতীয় নিবাস বলে তৃতীয় লিঙ্গের জন্য তৈরি করা আশ্রয়স্থলের ১২৫ সদস্যের মধ্যে ৪০ জনকে বেছে নেওয়া হয়েছিল টিকাকরণের জন্য। সূত্রের খবর পরের সপ্তাহ থেকে এই কর্মসূচিতে আরও জোর দেওয়া হবে।

    স্বাতী বিধান বড়ুয়ার কথায়, "একদিনে রোম তৈরি হয়নি। আমি খুশি আমাদের কেউ কেউ অন্তত সুবিধে পাচ্ছে। আমি খুশি অসম গোটা দেশকে পথ দেখাল তাই। সাধারণত রূপান্তরকামীদের সব সরকারই অবহেলার চোখে দেখে। অসম তার ব্যতিক্রম।"

    Published by:Arka Deb
    First published: