corona virus btn
corona virus btn
Loading

সংঘাত তো শেষ, বুধবারও বেরোল না কলকাতায় থাকা কেন্দ্রীয় দল!

সংঘাত তো শেষ, বুধবারও বেরোল না কলকাতায় থাকা কেন্দ্রীয় দল!

ওই দলের কি পরিকল্পনা বা কোথায় যেতে চান সে বিষয়েও কারোর কাছে কোন নির্দিষ্ট তথ্য নেই। যদিও এই দপ্তরের বাইরেই দিনভর বিএসএফের পাইলট কারের পাশাপাশি কলকাতা পুলিশের নির্দিষ্ট ব্যবস্থা রাখা হয়েছিল।

  • Share this:

#কলকাতা: কেন্দ্রীয় দলের রাজ্যে আসা নিয়ে এত বিতর্ক, এত ঢাক ঢোল বাজল কিন্তু ৪৮ ঘন্টা কেটে যাবার পরেও সেই ভাবে বাইরেই বেরোলো না এই দল। রাজ্যে করো না আবহে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে সোমবার দুপুরে এ রাজ্যে পৌঁছেছে কেন্দ্রীয় দল। কিন্তু বুধবার সন্ধ্যা পর্যন্ত গড়িয়ে গেলেও কলকাতায় থাকা কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের কোনো সদস্যই কার্যত বাইরে বের হলেন না।

ইতিমধ্যেই রাজ্যের মুখ্য সচিব কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক কে চিঠি দিয়ে আশ্বাস দিয়েছে এ রাজ্যে কেন্দ্রীয় দলকে সব রকম ভাবে সহযোগিতা করবে রাজ্য। কিন্তু তারপরেও কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল কেন বাইরে বেরল না তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। কলকাতায় থাকা কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল মঙ্গলবার কিছুক্ষণের জন্য যাদবপুর,টালিগঞ্জ,আলিপুর এর মত এলাকাগুলি ঘুরেছে বটে কিন্তু কারোর সঙ্গে কথা বলতে দেখা যায়নি কেন্দ্রীয় দলকে। তবে বুধবার সন্ধ্যা পর্যন্ত কলকাতায় থাকা কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের কোন প্রতিনিধি একবারের জন্যেও বাইরে বেরোতে দেখা গেল না।

কেন্দ্রের এই দল পাঠানো নিয়ে কেন্দ্র-রাজ্যের মধ্যে সংঘাতের পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল সোমবার থেকেই। রাজ্যের তরফে জানানো হয়েছিল আগে থেকে কোন কিছু না জানিয়ে কেন্দ্রীয় দল এখানে এসেছে। এমনকি দলটি রাজ্যে পৌঁছানোর পর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ফোন করে রাজ্যকে বিষয়টি সম্পর্কে অবহিত করেন। যেভাবে কেন্দ্রীয়় দল পাঠানো হয়েছে তাতে যুক্তরাষ্ট্রীয় সৌজন্যে ভঙ্গ হয়েছে বলে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী কে চিঠিও পাঠান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এরপর মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিব একটি চিঠি পাঠান  রাজ্যের মুখ্য সচিব কে। কলকাতায় যে কেন্দ্রীয় দলটি রয়েছে তার প্রধান রাজ্যের বিরুদ্ধে সরাসরি অসহযোগিতার অভিযোগ তোলেন। এরপর জবাবী চিঠিতে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিব কে জানানো হয় রাজ্য সব বিষয়ে সহযোগিতা করবে। যদিও কলকাতায় থাকা কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের সঙ্গে মুখ্যসচিবের পরপর দুবার বৈঠক হয়েছে।

বুধবার গুরুসদয় দত্ত রোডে বিএসএফের ইস্টার্ন কমান্ডের সদর দপ্তরে পৌঁছায় বালিগঞ্জ থানার পুলিশ। কলকাতা না জেলা প্রতিনিধি দলের সদস্যরা কোথায় যেতে চান তা নিয়ে পুলিশের সঙ্গে কথা হয়।বালিগঞ্জ থানার তরফে জানিয়ে দেওয়া হয় প্রতিনিধিদল যেখানেই যাবে সেখানেই সমস্ত ব্যবস্থা করবে পুলিশ প্রশাসন। কিন্তু এরপরেও বিএসএফের ওই দপ্তর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিদলের কেউই বেরোয়নি। ওই দলের কি পরিকল্পনা বা কোথায় যেতে চান সে বিষয়েও কারোর কাছে কোন নির্দিষ্ট তথ্য নেই। যদিও এই দপ্তরের বাইরেই দিনভর বিএসএফের পাইলট কারের পাশাপাশি কলকাতা পুলিশের নির্দিষ্ট ব্যবস্থা রাখা হয়েছিল। যদিও কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের সদস্যরা কোথায় যাবেন? হাসপাতাল পরিদর্শন করবেন নাকি সেই বিষয়ে সংবাদমাধ্যমকেও বুধবার সন্ধ্যা পর্যন্ত কোন বিবৃতি দেওয়া় হয়নি।

Somraj Bandopadhyay

First published: April 22, 2020, 8:08 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर