প্রকাশ্যে কোভিড ভ্যাকসিন নিতে চলেছেন আমেরিকার ভাইস প্রেসিডেন্ট

প্রকাশ্যে কোভিড ভ্যাকসিন নিতে চলেছেন আমেরিকার ভাইস প্রেসিডেন্ট

ভ্যাকসিন নিতে লোকজনকে উৎসাহিত করতেই শুক্রবার প্রকাশ্যে ভ্যাকসিন নেবেন তিনি।

ভ্যাকসিন নিতে লোকজনকে উৎসাহিত করতেই শুক্রবার প্রকাশ্যে ভ্যাকসিন নেবেন তিনি।

  • Share this:

    #ওয়াশিংটন: জনসমক্ষে করোনা ভ্যাকসিন নিতে চলেছেন আমেরিকার ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স ও তার স্ত্রী কারেন পেন্স। ভ্যাকসিন নিতে লোকজনকে উৎসাহিত করতেই শুক্রবার প্রকাশ্যে ভ্যাকসিন নেবেন তিনি। হোয়াইট হাউজের তরফের এই খবর শুক্রবার এক প্রতিবেদনে এ জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

    প্রেসিডেন্টের দফতর হোয়াইট হাউসের এক বিবৃতিতেও বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, ভ্যাকসিন কতোটা নিরাপদ ও কার্যকার সে নিয়ে আমেরিকানদের মধ্যে বিশ্বাস তৈরি করতেই স্ত্রীকে নিয়ে প্রকাশ্যে ভ্যাকসিন নেবেন ভাইস প্রেসিডেন্ট।

    জানা গিযেছে , সস্ত্রীক ভাইস প্রেসিডেন্টের ভ্যাকসিন নেওয়ার অনুষ্ঠান টেলিভিশনেও সম্প্রচার করা হবে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন আমেরিকার স্বাস্থ্য কর্মকর্তা সার্জন জেনারেল জারোম অ্যাডামস্ তিনিও ভ্যাকসিন নেবেন ৷

    এদিকে নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনও (৭৮) শীঘ্রই প্রকাশ্যে ভ্যাকসিন নেবেন বলে জানা গিয়েছে।বুধবার ভ্যাকসিন প্রসঙ্গে বাইডেন জানান, ভ্যাকসিন নেওয়ার ক্ষেত্রে প্রথম সারিতে থাকার কোনও ইচ্ছে তাঁর ছিল না। তবে তিনি গোটা আমেরিকাবাসী কে নিশ্চিত করতে চান, এই ভ্যাকসিন নেওয়া নিরাপদ৷ তাই এমন সিদ্ধান্ত৷

    চলতি সপ্তাহের মধ্যেই আমেরিকা ফাইজার-বায়োএনটেক দ্বারা তৈরি ভ্যাকসিনের ২.৯ মিলিয়ন ডোজ সংগ্রহ করার লক্ষ্য নিয়েছে। এর আগে হোয়াইট হাউজ জানিয়েছে, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভ্যাকসিন নেওয়ার দিনক্ষণ জানানো হবে না। চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী টিকা নেবেন তিনি।

    হোয়াইট হাউজের মুখপাত্র কাইলেই ম্যাকইনানি জানিয়েছেন, প্রেসিডেন্ট মনে কোনো সংশয় না নিয়েই ভ্যাকসিন নিতে চলেছেন। যদিও তিনি ফ্রন্টলাইন কর্মীদের অগ্রাধিকার দিতে চান। তিন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি - বিল ক্লিনটন, জর্জ ডব্লু বুশ এবং বারাক ওবামা - সকলেই জানিয়েছেন যে তাঁরা প্রকাশ্যে করোনভাইরাস ভ্যাকসিন গ্রহণ করতে ইচ্ছুক৷ প্রসঙ্গত, ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স শুক্রবার টিকা নেবেন বলে জানা গিয়েছে।

    সোমবার থেকেই আমেরিকায় ফাইজার/বায়োএনটেক উদ্ভাবিত করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু হয়েছে।জরুরি ব্যবহারের জন্য এই ভ্যাকসিন অনুমোদন করা হয়েছে। স্বাস্থ্যকর্মী এবং প্রবীণরা ভ্যাকসিন নেওয়ার ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পাবেন৷ বাকী সাধারণ জনগোষ্ঠীর জন্য এই ভ্যাকসিন ব্যাপকভাবে উপলব্ধ হওয়ার জন্য কয়েক মাস অপেক্ষা করতে হতে পারে৷

    Published by:Simli Dasgupta
    First published: