corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা আক্রান্তের স্ত্রী, ছেলে, মেয়ে-সহ ৯ জনের রিপোর্ট নেগেটিভ, স্বস্তি খন্ডঘোষে

করোনা আক্রান্তের স্ত্রী, ছেলে, মেয়ে-সহ ৯ জনের রিপোর্ট নেগেটিভ, স্বস্তি খন্ডঘোষে
  • Share this:

Saradindu Ghosh

#খন্ডঘোষ: খন্ডঘোষের বাদুলিয়ায় করোনা আক্রান্তের স্ত্রী, ছেলে, মেয়ের শরীরে করোনার সংক্রমণ মেলেনি। পরিবারের সদস্য সহ ন’জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছিল। তাঁদের সকলেরই রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে বলে জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে। আরও দশ জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। অন্যদিকে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রসূতি বিভাগের আট জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য কলকাতায় পাঠানো হয়েছে। গত শনিবার পূর্ব বর্ধমানের খন্ডঘোষের বাদুলিয়া গ্রামের ৪৩ বছর বয়সী এক ব্যক্তির দেহে করোনার সংক্রমণ ধরা পড়ে। তিনি করোনার উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসা করাতে গেলে তাঁকে দু’নম্বর জাতীয় সড়কের পাশে করোনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাঁর নমুনায় করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের প্রমাণ মিলতেই তাঁর সংস্পর্শে আসা পরিবারের সদস্য সহ একাত্তর জনকে তুলে এনে কোয়ারান্টিন সেন্টারে রাখা হয়। ওই ব্যক্তিকে পাঠানো হয় দুর্গাপুরের করোনা হাসপাতালে। জেলা প্রশাসন ও জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, খন্ডঘোষের করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির স্ত্রী, এক ছেলে, এক মেয়ে, শ্বশুর সহ ন’জনের নমুনা সংগ্রহ করে তা পরীক্ষার জন্য কলকাতায় পাঠানো হয়েছিল। তাঁদের প্রত্যেকেরই রিপোর্ট করোনা নেগেটিভ বলে জানানো হয়েছে। তবে তাঁদের এখনও কোয়ারান্টিন সেন্টারেই থাকতে হবে। ওই আক্রান্তের সংস্পর্শে আসা  আরও দশ জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য কলকাতা পাঠানো হচ্ছে।

অন্যদিকে বর্ধমান শহর লাগোয়া গাঙপুরে দু নম্বর জাতীয় সড়কের পাশের কোভিড হাসপাতালে ভর্তি থাকা আরও দু জনের মৃত্যু হওয়ায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, আগে ওই হাসপাতালে যাঁদের মৃত্যু হয়েছিল তাঁদের প্রত্যেকের রিপোর্ট করোনা নেগেটিভ এসেছিল। এই দু’জনেরই নমুনা সংগ্রহ করে তা করোনা পরীক্ষার জন্য কলকাতায় পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট এলে মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে। করোনার সংক্রমণ নিয়ে ওই হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তাঁরা। হঠাৎ করে তাঁদের মৃত্যুর কারণ কী তা জানতে উৎসুক জেলা প্রশাসনও। প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই করোনা হাসপাতালে  ৪৯ জন ভর্তি রয়েছেন। বুধবার নতুন করে দশ জনকে ভর্তি করা হয়েছে।

First published: April 23, 2020, 12:09 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर