গায়ত্রী মন্ত্র জপ করলে করোনা সারে কি না পরীক্ষা করে দেখছে AIIMS!

গায়ত্রী মন্ত্র জপ করলে করোনা সারে কি না পরীক্ষা করে দেখছে AIIMS!

গায়ত্রী মন্ত্র জপ করলে করোনা সারে কি না পরীক্ষা করে দেখছে AIIMS!

ভারত সরকারের ডিপার্টমেন্ট অফ সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির তরফে এই সমীক্ষা পরিচালনার নির্দেশ পাঠানো হয়েছে অল ইন্ডিয়া ইন্সটিটিউট অফ ম?

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: জানা গিয়েছে যে অল ইন্ডিয়া ইন্সটিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্স, হৃষীকেশ এবার করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিহত করার উপা আবিষ্কারের লক্ষ্যে এক অভিনব সমীক্ষা পরিচালনা করতে চলেছে। সংস্থা পরীক্ষা করে দেখবে যে নিয়মিত গায়ত্রী মন্ত্র জপ এবং প্রাণায়াম এই মারণ ভাইরাসের হাত থেকে শরীরকে মুক্তি দিতে পারে কি না!

সূত্রে খবর, ভারত সরকারের ডিপার্টমেন্ট অফ সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির তরফে এই সমীক্ষা পরিচালনার নির্দেশ পাঠানো হয়েছে অল ইন্ডিয়া ইন্সটিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্স, হৃষীকেশে। তবে শুধুই গায়ত্রী মন্ত্র এবং প্রাণায়ামের উপরে নির্ভর করে সমীক্ষা পরিচালিত হবে না, পাশাপাশি এত দিন পর্যন্ত যে ওষুধ এবং পদ্ধতি অবলম্বন করে করোনার চিকিৎসা চলছিল, সেটাও অনুসরণ করা হবে।

অল ইন্ডিয়া ইন্সটিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্স, হৃষীকেশের কর্তাব্যক্তিরা জানিয়েছেন যে এই সমীক্ষা পরিচালনার জন্য সরকারের নির্দেশমতো দু'টি করোনায় আক্রান্ত রোগীর দল তৈরি করা হয়েছে। প্রতি দলে রয়েছেন ১০ জন করে রোগী। এঁদের মধ্যে একদল প্রতি দিন সকালে গায়ত্রী মন্ত্র জপ করবেন, প্রাণায়াম করবেন; পাশাপাশি প্রচলিত মতে তাঁদের চিকিৎসাও চলবে। আর অন্য দলটিকে গায়ত্রী মন্ত্র জপ এবং প্রাণায়াম করানো হবে না। সমীক্ষা শুরুর আগে এঁদের সব রকম শারীরিক অবস্থা পরীক্ষা করে দেখে নেওয়া হবে। তার পর ১৪ দিন বাদে সমীক্ষার শেষে আবার মেডিক্যাল টেস্ট করে দেখা হবে যে দুই দলের শারীরিক অবস্থায় কোনও তফাত লক্ষ্য করা যাচ্ছে কি না!

এই জায়গায় এসে প্রশ্ন উঠতেই পারে যে ভাইরাস প্রতিহত করার জন্য মন্ত্র এবং প্রাণায়ামের সাহায্য কেন নেওয়া হচ্ছে! মুখ্যত করোনাভাইরাস আমাদের শ্বাসযন্ত্রে আঘাত করে, প্রাণায়ামের দ্বারা তার কার্যকারিতা এবং শক্তি বৃদ্ধি করা যায়। প্রাণায়ামের প্রভাবে শ্বাসযন্ত্র শক্তিশালী হলে তা ভাইরাসের সঙ্গে লড়াই করার ক্ষমতা সঞ্চয় করতে পারবে। অন্য দিকে বলা হয় যে এই গায়ত্রী মন্ত্র সকল প্রকার যন্ত্রণার উপশমে সক্ষম; তা আমাদের স্বাস্থ্যে ইতিবাচক শক্তিসঞ্চার করে। সেই বিশ্বাসে ভর করে মারণ ভাইরাসকে প্রতিহত করা যায় কি না, তা আপাতত পরীক্ষা করে দেখতে চাইছে ভারত সরকার।

Published by:Simli Raha
First published: