corona virus btn
corona virus btn
Loading

ট্যুইটারে ভেন্টিলেটর তৈরির বরাত! তিনগুণ টাকা দিয়েও সামগ্রী পাননি ট্রাম্প

ট্যুইটারে ভেন্টিলেটর তৈরির বরাত! তিনগুণ টাকা দিয়েও সামগ্রী পাননি ট্রাম্প
২৭ মার্চ ভেন্টিলেটর চেয়ে টুইট করেন ট্রাম্প।

ইতিমধ্যেই সেই চুক্তি বাতিল করে টাকা উদ্ধারের চেষ্টায় নেমেছে নিউইয়র্ক প্রশাসন। সংবাদমাধ্যমের কোনও প্রশ্নেরই জবাব দিতে চাননি ওরেন পাইনসও।

  • Share this:

#ওয়াশিংটন: ২৭ মার্চ। নিউইয়র্কের হাসপাতালগুলি ভরছে ধীরে ধীরে। এমার্জেন্সিতে ভর্তি রোগীদের শ্বাসজনিত সমস্যা বাড়ছে। এই পরিস্থিতিতে ডোলাল্ড ট্রাম্প নিজের টুইট হ্যন্ডেলে লেখেন,"ভেন্টিলেটর তৈরি করা শুরু করতে হবে এখনই।"

দেশের গুরুতর বিপদ। বুঝতে পেরেই বহু মানুষ সক্রিয়তা দেখান সেই টুইটেই। হাজার হাজার প্রত্যুত্তরের মধ্যেই একটি ছিল-"আমরা আইসিউ ভেন্টিলেটর ও অন্যান্য জরুরি সামগ্রী সরবরাহ করতে পারি। আমাকে আপৎকালীন তৎপরতায় ফোন করুন।"

টুইটটি করেন সিলিকন ভ্যালির ইলেক্ট্রিকাল ইঞ্জিনিয়র ইয়ারন ওরেন পাইনসল। মোবাইল ফোন টেকনোলজি সংক্রান্ত বিষয়ে পারদর্শী তিনি। মাত্র ৭৫টি লাইক তাঁর ট্যুইটর অ্যাকাউন্টে। এবং সরকারি স্বাস্থ্যসামগ্রী সরবরাহে তাঁর কোনও পূর্বতন অভিজ্ঞতাই নেই।

কিন্তু ঠিক ৭২ ঘন্টার মধ্যে জানানো হয়, ওরেন পাইনস মোট ১৪৫০টি ভেন্টিলেটর তৈরির জন্যে ৬৩.১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার নিয়েছেন। বাজারদরের তিনগুণ দামেই এই বরাত পাইয়ে দেওয়া হয়।

ইতিমধ্যে দল অনেক গড়িয়েছে। বিশ্বে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩২ লক্ষ ছাড়িয়েছে। আমেরিকায় করোনায় মৃত অন্তত ৬১ হাজার মানুষ। কিন্তু সেই ভেন্টিলেটর কেনা বিশ বাও জলে।

নিউইয়র্ক প্রদেশের এক প্রশাসনিক কর্তার মতে, হোয়াইট হাউজের টাস্ক ফোর্সের তরফেই নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল ওরেন পাইনসের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হতে। কিন্তু সেই চুক্তির শর্তাশর্ত প্রকাশ্যে বলা মানা।

ইতিমধ্যেই সেই চুক্তি বাতিল করে টাকা উদ্ধারের চেষ্টায় নেমেছে নিউইয়র্ক প্রশাসন। সংবাদমাধ্যমের কোনও প্রশ্নেরই জবাব দিতে চাননি ওরেন পাইনসও।

Published by: Arka Deb
First published: April 30, 2020, 9:06 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर