Home /News /coronavirus-latest-news /
এবার করোনার সংক্রমণ বর্ধমান শহরে ! আক্রান্ত এক নার্স

এবার করোনার সংক্রমণ বর্ধমান শহরে ! আক্রান্ত এক নার্স

Representational Image

Representational Image

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, আক্রান্ত ওই মহিলা কলকাতায় প্যাভলভ মানসিক হাসপাতালে নার্সের কাজ করতেন।

  • Share this:

#বর্ধমান: আবারও করোনা আক্রান্তের হদিশ পূর্ব বর্ধমান জেলায়। খণ্ডঘোষের বাদুলিয়ার পর এবার করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলল বর্ধমান শহরেই। বর্ধমান শহরের সুভাষপল্লী এলাকার এক মহিলা করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। নমুনা পরীক্ষায় তাঁর করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। এরপরই ওই মহিলাকে দুর্গাপুরের কোভিড থ্রি হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনায় উদ্বিগ্ন শহরের বাসিন্দারা।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, আক্রান্ত ওই মহিলা কলকাতায় প্যাভলভ মানসিক হাসপাতালে নার্সের কাজ করতেন। সেখান থেকে ছুটি নিয়ে গত সপ্তাহের ২ মে বর্ধমানের বাড়িতে আসেন। চার চাকার গাড়িতে তিনি বর্ধমানে এসেছিলেন। সেখানে অসুস্থ বোধ করায় তিনি বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যান।করোনার উপসর্গ থাকায় চিকিৎসকরা তাকে বর্ধমান শহর লাগোয়া দু’নম্বর জাতীয় সড়কের পাশে করোনা হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন। সেখানেই নমুনা সংগ্রহ করে তা বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। সেই পরীক্ষায় তার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট মেলে।

পূর্ব বর্ধমানের জেলাশাসক বিজয় ভারতী বলেন, বর্ধমানের সুভাষপল্লী এলাকায় এক মহিলা করোনায়  আক্রান্ত হয়েছেন। তার রিপোর্ট করোনা পজিটিভ আসার পরই তাঁর সংস্পর্শে আসা পরিবারের অন্যান্যদের কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ওই মহিলার স্বামী, দুই ছেলে ও শাশুড়িকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এছাড়াও তিনি যে গাড়িতে করে বর্ধমানে ফিরেছিলেন সেই গাড়ির চালককেও কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ওই চালকের সংস্পর্শে আর কারা কারা এসেছিলেন সে ব্যাপারে পুলিশ বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করছে।

দু’সপ্তাহ আগে পূর্ব বর্ধমান জেলার খণ্ডঘোষের বাদুলিয়া গ্রামের এক ব্যক্তির দেহে করোনার সংক্রমণ মেলে। ওই ব্যক্তিও কলকাতার মেটিয়াবুরুজ থেকে মোটরসাইকেলে বাড়ি ফিরেছিলেন। ওই ব্যক্তির সংস্পর্শে আসায় তার ন বছরের ভাইঝিও করোনায়  আক্রান্ত হয়। তাদের দু'জনকেই দুর্গাপুরের সনকা হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা করানো হয়। এছাড়াও  তাদের সংস্পর্শে আসা পরিবারের সদস্য ও পরিচিত মিলিয়ে ৭৪ জনকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে রেখে তাদের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। তাতে বাকিদের সকলেরই রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছিল। ওই দুই করোনা আক্রান্ত সুস্থ হওয়ার পর তাদের বাড়ি পাঠানো হয়েছে। বাড়ি ফিরেছেন তাদের সংস্পর্শে আসা কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে থাকা বাকিরাও। সেই ঘটনার রেশ মিটতে না মিটতেই ফের করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলল এবার বর্ধমান শহরে।

Saradindu Ghosh

Published by:Siddhartha Sarkar
First published:

Tags: Bardhaman, Coronavirus, Coronavirus in India

পরবর্তী খবর