Covid in Everest: বিশ্বের সর্বোচ্চ শৃঙ্গ মাউন্ট এভারেস্টে এবার করোনার থাবা, আক্রান্ত নরওয়ের পর্বতারোহী!

এই প্রথম মাউন্ট এভারেস্টে মিলল করোনা রোগীর খোঁজ।

এই প্রথম মাউন্ট এভারেস্টে (Mount Everest) মিলল করোনা রোগীর (Coronavirus) খোঁজ। গত বছর করোনাভাইরাসের অতিমারির কারণেই পর্বতারোহণ বন্ধ রাখা হয়েছিল। ২০১৯ সালের মে মাসের পর এ মাসেই প্রথম মাউন্ট এভারেস্টে পা রেখেছেন অভিযাত্রীরা।

  • Share this:

    #কাঠমান্ডু: এটাই হয়তো বাকি ছিল। বিশ্বজুড়ে যে ভয়ানক তাণ্ডব শুরু করেছে করোনাভাইরাস (Coronavirus), তার থাবা এবার পড়ল মাউন্ট এভারেস্টেও। বিশ্বের সর্বোচ্চ শৃঙ্গ মাউন্ট এভারেস্টে (Mount Everest) এভাবে করোনাভাইরাস (Covid-19) মেলায় স্বাভাবিক ভাবেই চিন্তায় পড়েছেন বিজ্ঞানীরা। জানা গিয়েছে, এভারেস্টের বেস ক্যাম্পে কোভিড ১৯ পজিটিভ হয়েছেন নরওয়ের এক পর্বতারোহী। এবং এই প্রথম মাউন্ট এভারেস্টে মিলল করোনা রোগীর খোঁজ। গত বছর করোনাভাইরাসের অতিমারির কারণেই পর্বতারোহণ বন্ধ রাখা হয়েছিল। ২০১৯ সালের মে মাসের পর এ মাসেই প্রথম মাউন্ট এভারেস্টে পা রেখেছেন অভিযাত্রীরা।

    মাউন্ট এভারেস্ট বেস ক্যাম্প থেকে ওই পর্বতারোহীকে হেলিকপ্টারে নামিয়ে আনা হয়েছে। ভর্তি করা হয়েছে কাঠমান্ডুর একটি হাসপাতালে। আর্লেন্ড নেস নামে ওই অভিযাত্রী একটি সংবাদসংস্থাকে মেসেজ করে জানিয়েছেন, গত ১৫ এপ্রিল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন তিনি। বৃহস্পতিবার ফের তাঁর করোনা পরীক্ষা করা হলে তা নেগেটিভ এসেছে, এবং স্থানীয় এক পরিবারের সঙ্গেই রয়েছেন তিনি।

    এই ঘটনায় অত্যন্ত আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন পর্বতারোহণ বিশেষজ্ঞরা। অস্ট্রেলিয়ার বিখ্যাত গাইড লুকাল ফার্টেনবাকের আশঙ্কা, এই ভাইরাস ভয়াবহ ভাবে ছড়িয়ে পড়তে পারে গোটা এভারেস্ট বেস ক্যাম্পে। সেখানে আক্রান্ত হতে পারেন শ'য়ে শ'য়ে পর্বতারোহী, গাইড ও হেল্পার। তাঁদের দ্রুত করোনা পরীক্ষার বন্দোবস্ত করা প্রয়োজন। সেখানে করোনা ভয়াবহতা নিলে গোটা পর্বতারোহণের সময়টাই নষ্ট হয়ে যাবে। মে মাসের ভালো আবহাওয়াতেই এখানে সবচেয়ে বেশি পর্বতারোহীরা যান।

    ফার্টেনবাকের কথায়, 'বেসক্যাম্পে জরুরি ভিত্তিতে করোনা পরীক্ষার প্রয়োজন। তাতে করোনা ধরা পড়লে তাঁকে তখনই আইসোলেশনে পাঠানো যায় এবং কারও সঙ্গে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া যায়। এটা খুবই তাড়াতাড়ি করা প্রয়োজন, নইলে অনেক দেরি হয়ে যাবে।' যদিও এক নেপালি পর্বতারোহণ আধিকারিক কোনও রকম করোনা সংক্রমণের কথা মেনে নিতে রাজি হননি। মাউন্টেনিয়ারিং দফতরের ডিরেক্টর মীরা আচার্যের মতে, এখনও পর্যন্ত সরকারি ভাবে কোনও করোনা পজিটিভের খোঁজ মেলেনি। কারও নিউমোনিয়া বা উচ্চতা নিয়ে দুর্বলতার খবর পাওয়া গিয়েছে।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published: