corona virus btn
corona virus btn
Loading

শিলিগুড়িতে লকডাউন বিধি শিকেয় তুলে চলছিল সিনেমার শ্যুটিং! গ্রেফতার পরিচালক-সহ ৩

শিলিগুড়িতে লকডাউন বিধি শিকেয় তুলে চলছিল সিনেমার শ্যুটিং! গ্রেফতার পরিচালক-সহ ৩

শিলিগুড়ির সেবক রোড সংলগ্নও ডন বস্কো রোডের একটি বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনে শুরু হয়েছিল শুটিং।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: শিলিগুড়ির সেবক রোড সংলগ্নও ডন বস্কো রোডের একটি বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনে শুরু হয়েছিল শুটিং। সামাজিক দূরত্ব উপেক্ষা করে সেই শুটিং আর নায়ক-নায়িকা-ভিলেনকে দেখতে এলাকায় ভিড় জমিয়েছিলেন স্থানীয় বাসিন্দারা। সেই খবর যায় প্রশাসনের কাছে। জানা যায়, লকডাউনের মধ্যে শুটিং শুরু হওয়া সত্ত্বেও স্থানীয় পুলিশ এবং প্রশাসনিক কর্তাদের এ বিষয়ে কোনও কিছুই জানান হয়নি। নেওয়া হয়নি কোনও অনুমতি।

শিলিগুড়িতে লকডাউন চলছে। করোনা মোকাবিলায় আরও ৭ দিন লকডাউনের সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে। এই সময়ে শ্যুটিংও সম্পূর্ণভাবে নিষিদ্ধ। কিন্তু তাতে থোড়াই কেয়ার। নিয়ম বিধি ভুলে শুরু হয়েছিল নেপালি ছবির কাজ। বুধবার সেই খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছন ভক্তিনগর থানার পুলিশ। পুলিশি জেরায় অসংলগ্ন যুক্তি তুলে ধরেন পরিচালক। তারপরই লকডাউন বিধি ভঙ্গের দায়ে পুলিশ তিনজনকে গ্রেফতার করে। ধৃতেরা কালিম্পংয়ের বাসিন্দা। তাদের বিরুদ্ধে লকডাউন বিধি ভাঙার অভিযোগে মামলা রুজু হয়েছে ভক্তিনগর থানায়। ধৃতদের আরও জেরা করতে চায় পুলিশ।

এভাবে লকডাউন আবহে বিনা অনুমতিতে কেন ছবির শ্যুটিং? এই সময়ে উত্তরবঙ্গের পাহাড় ও ডুয়ার্সে টলিউডের একাধিক ছবির শ্যুটিংয়ের শিডিউল ছিল। প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের বেশ কয়েকটি ছবির শ্যুটিংয়ের দিনও চূড়ান্ত হয়ে গিয়েছিল। শাশ্বত চটোপাধ্যায়, সব্যসাচী চক্রবর্তীরও বেশ কয়েকটি ছবির শ্যুটিংয়ের কথা ছিল। শ্যুটিংয়ের স্পটও বাছাইও সম্পন্ন হয়েছিল। কিন্তু করোনা এবং লকডাউনের জন্য সব ছবির শ্যুটিং আপাতত স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন পরিচালকেরা। সব জট কাটলে তবেই শুরু হবে শুটিং।

এদিন শিলিগুড়ি পুলিশের এসিপি (পূর্ব) স্বপন সরকার জানান, কোনও অনুমতি ছাড়াই শ্যুটিং চলছিল। জিজ্ঞাসাবাদেও সদুত্তর মেলেনি। ফলে তিনজনকে ঘটনাস্থল থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। লকডাউন ভেঙে রাস্তায় নেমে কাজ করার মামলা রুজু করা হয়েছে।

Partha Sarkar

Published by: Shubhagata Dey
First published: July 22, 2020, 6:54 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर