করোনা ভাইরাস

corona virus btn
corona virus btn
Loading

একা পেয়ে মোবাইলে অশ্লীল ছবি দেখিয়ে নাবালিকার উপর যৌন নির্যাতন! ফুঁসছে বর্ধমান

একা পেয়ে মোবাইলে অশ্লীল ছবি দেখিয়ে নাবালিকার উপর যৌন নির্যাতন! ফুঁসছে বর্ধমান
প্রতীকী চিত্র

অভিযোগ পাওয়ার পর ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পূর্বস্থলী থানার পুলিশ।

  • Share this:

#পূর্বস্থলী: ফের বিকৃত লালসার শিকার হল এক নাবালিকা। দশ বছরের ওই কিশোরীকে একা পেয়ে তার উপর পাশবিক শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠল। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে পূর্ব বর্ধমানের পূর্বস্থলী থানার এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। ওই কিশোরীর পরিবারের পক্ষ থেকে পূর্বস্থলী থানায় ঘটনার কথা বিস্তারিতভাবে উল্লেখ করে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযুক্ত ব্যক্তির দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন এলাকার বাসিন্দারা।ঘটনার পর থেকেই অভিযুক্ত ব্যক্তি পলাতক বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে। অভিযোগ পাওয়ার পর ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পূর্বস্থলী থানার পুলিশ।

পূর্ব বর্ধমান জেলা জুড়েই শ্লীলতাহানি,ধর্ষণের ঘটনা বেড়েই চলেছে। বিভিন্ন থানা এলাকায় মাঝেমধ্যেই নাবালিকাদের ওপর শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠছে। এমনই এক অভিযোগকে কেন্দ্র করে সরগরম পূর্ব বর্ধমান জেলার পূর্বস্থলী থানার অন্তর্গত শর্ট ডাঙ্গা গ্রাম। এখানে চতুর্থ শ্রেণীর এক ছাত্রী যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছে। বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে প্রতিবেশী এক ব্যক্তি বাড়িতে ঢুকে ওই নাবালিকার ওপর যৌন নির্যাতন চালায় বলে অভিযোগ। ঘটনার পর শারীরিকভাবে অসুস্থতা বোধ করে ওই নাবালিকা। অসুস্থতার কারণ জানতে চাওয়ায় তার মাকে ঘটনার কথা পুরোপুরি জানিয়ে দেয় ওই ছাত্রী। এরপরই সোমবার পরিবারের পক্ষ থেকে ঘটনার কথা বিস্তারিত হবে জানিয়ে অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে পূর্বস্থলী থানা লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, বাড়ির সদস্যরা কাজের প্রয়োজনে বাইরে গিয়েছিলেন। বাড়িতে একাই ছিল দশ বছরের ওই শিশু কন্যা। সেই সময় প্রতিবেশী এক ব্যক্তি ওই বাড়িতে ঢুকে বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগ নিয়ে ওই নাবালিকাকে মোবাইল ফোন থেকে অশ্লীল ছবি দেখায। এরপর ওই নাবালিকার ওপর সেই ব্যক্তি যৌন নির্যাতন চালায় বলে অভিযোগ। তাতে ওই নাবালিকা অসুস্থ হয়ে পড়লে অভিযুক্ত ব্যক্তি পালিয়ে যায়। বাড়িতে এসে নাবালিকাকে অসুস্থ অবস্থায় দেখতে পায় পরিবারের সদস্যরা। কারণ জানতে চাইলে মায়ের কাছে ঘটনার কথা বিস্তারিতভাবে জানায় ওই ছাত্রী। এরপরই ওই পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় গিয়ে লিখিত অভিযোগ জানানো হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গুরুত্বের সঙ্গে ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। অভিযুক্ত ব্যক্তির হদিশ পাওয়ার চেষ্টা চলছে।

Published by: Arka Deb
First published: November 3, 2020, 11:04 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर