আক্রান্ত খোদ মহকুমা হাসপাতালের চিকিৎসক! আতঙ্কের ছায়া পূর্ব বর্ধমানে

বর্ধমানে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা।

এই নিয়ে পূর্ব বর্ধমান জেলায় ১৭০জন করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলল।

  • Share this:

#পূর্ব বর্ধমান: পূর্ব বর্ধমান জেলায় নতুন করে পাঁচজন করোনায় আক্রান্ত হলেন। তার মধ্যে কালনা মহকুমা হাসপাতালের এক চিকিৎসক রয়েছেন।এই নিয়ে পূর্ব বর্ধমান জেলায় ১৭০জন করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলল। লাফিয়ে লাফিয়ে করোনার সংক্রমণ বাড়তে থাকায় উদ্বিগ্ন জেলার বাসিন্দারা।

জেলা স্বাস্থ্য দফতর জানিয়েছে, আক্রান্তদের সকলকেই বর্ধমানের বামচাঁদাইপুরে দু নম্বর জাতীয় সড়কের পাশে করোনা হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তাদের সংস্পর্শে যাঁরা এসেছেন তাঁদেরকেও কোয়ারান্টিনে রেখে লালারসের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করানো হবে।

পূর্ব বর্ধমান জেলায় এদিন পর্যন্ত ১৭০ জন করোনা আক্রান্তের মধ্যে তেইশ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। বাকি ১৪৭ জন করোনা হাসপাতালে চিকিৎসার পর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। নতুন করে আক্রান্ত পাঁচ জনের মধ্যে বর্ধমান পৌরসভা এলাকায় এক বাসিন্দা রয়েছেন। এর ফলে শহরের বাসিন্দারা উদ্বিগ্ন। আতঙ্ক বেড়েছে মেমারি পৌরসভা এলাকাতেও। সেখানেরও এক বাসিন্দা করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়াও বর্ধমান এক ব্লকে একজন, মেমারি এক ব্লকে এক জন এবং মেমারি দুই নম্বর ব্লকে একজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

বর্ধমান এক ব্লকের আক্রান্ত ব্যক্তি কালনা মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসক। কারা কারা তাঁর সংস্পর্শে এসেছিলেন তার তালিকা তৈরির কাজ চলছে। সংশ্লিষ্ট এলাকাগুলোতে কন্টেইনমেন্ট জোন হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। তার পাশের এলাকাগুলিতে বাফার জোন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

অন্য দিকে লাগোয়া জেলা পশ্চিম বর্ধমানের দুর্গাপুরে তিন চিকিৎসক সহ নয় জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, দুর্গাপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালের কার্ডিওলজি বিভাগের তিন চিকিৎসক ও দু জন টেকনিশিয়ান নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তাঁদের সংস্পর্শে ওই হাসপাতালে আরও অনেকেই এসেছিলেন বলে প্রাথমিকভাবে খবর মিলেছে। তাঁদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। সংস্পর্শে আসা পুরুষ মহিলাদের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলা হয়েছে। তাঁদের শারীরিক অবস্থার ওপর নজর রাখা হচ্ছে। তাঁদের লালারসের নমুনা সংগ্রহ করে তা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে।

এছাড়াও দুর্গাপুরে রাজবাঁধ ও পানাগড় এলাকায় এদিন আরও চারজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তাঁদের মধ্যে দুর্গাপুর মহকুমা শাসকের অফিসের একজন কর্মীও রয়েছেন। এর আগে ওই অফিসের দুজন ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট সহ তিন জন কর্মী আক্রান্ত হয়েছিলেন।

Published by:Arka Deb
First published: