করোনা ভাইরাস

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

বিপদকে তুচ্ছ করে রাত দিন রাজপথে, পুলিশকে প্রতিদান ফিরিয়ে দিলেন ওঁরা

বিপদকে তুচ্ছ করে রাত দিন রাজপথে, পুলিশকে প্রতিদান ফিরিয়ে দিলেন ওঁরা
প্রতীকী চিত্র

দুপুরের রোদ যখন চড়চড় করে চড়ছে, এসির আরামে বসে তাঁদের কথা মনে রাখেন আর ক'জন। তবে ব্যতিক্রমও রয়েছে। যেমন হাজরা বয়েজ অ্যাসোসিয়েশনের ছেলেরা।

  • Share this:

#কলকাতা: করোনা লকডাউন অধ্যায়ে সকাল থেকে রাত রাস্তায় রয়েছেন ওঁরা। কখনও বাজারে মানুষকে দাঁড় করাচ্ছেন স্যোশাল ডিসট্যান্সিনং  মেনে। আবার কোথাও সারাদিন ধরে চলছে টহলদারি। হাসপাতাল থেকে রেশন দোকান,  কমিউনিটি কিচেন থেকে রাস্তার মোড়; নাওয়া খাওয়া ভুলে জেগে আছে  ওঁরা সর্বত্র। কিন্তু দুপুরের রোদ যখন চড়চড় করে চড়ছে, এসির আরামে বসে তাঁদের কথা মনে রাখেন আর ক'জন। তবে ব্যতিক্রমও রয়েছে। যেমন হাজরা বয়েজ অ্যাসোসিয়েশনের ছেলেরা। এ বার কর্তব্যরত  পুলিশকর্মীদের  জন্য খাবার ও জলের পরিষেবা চালু করলেন তাঁকা।

হাজরা অঞ্চলের পরিচিত এক ক্লাব হাজরা বয়েজ অ্যাসোসিয়েশান। এই লকডাউনের দিনে হাজরা থেকে রবীন্দ্রসদন পর্য়ন্ত সমস্ত পুলিস কিয়স্ক,  বাজার রাস্তায় কর্মরত পুলিস কর্মীদের জল,  মাস্ক,  বিস্কুট এবং হ্যান্ড স্যানিটাইসার দিচ্ছেন ওরা। আজই নয়, ওঁদের প্রতিশ্রুতি আগামী দিনগুলিতেও এই পরিষেবা চালিয়ে যাবেন ।

তিন চারটে বাইকে চেপে ক্লাবের বিনোদ,  শুভেন্দু,  জয়দেব,  সঞ্জয়রা কাজ করছেন ঘুরে ঘুরে। হাজরার এই প্রাচীন  ক্লাবটির সংগে জড়িয়ে রয়েছেন মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ও। শোভনদেবের উদ্যোগেই ক্লাবের ছেলেদের হাতে নির্মাতা  সংস্থা এপেক ইন্ডিয়া র দেওয়া মাস্ক,  হ্যান্ড স্যানিটাইসার তুলে দেওয়া হয়েছে। বাকি ক্লাব সদস্যদের টাকায় জল,  বিস্কুট সংগ্রহ করা হয়েছে।

এলাকার ছেলেদের এই সৌজন্যে খুশি পুলিশকর্মীরাও। ক্লাবের সম্পাদক বিনোদ পাসোয়ানের কথায় , "লকডাউন পর্বে চিকিৎসক দের পাশেই প্রচুর খাটছেন পুলিসের বন্ধুরা,  তাই স্থানীয় ক্লাব হিসেবে ওঁদের একটু পাশে থাকতে চাইছি আমরা ।"

Published by: Arka Deb
First published: April 19, 2020, 11:47 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर