corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনায় ছেলের মৃত্যু, ৯৩-র বৃদ্ধা মা সেরে উঠলেও তাঁকে বাড়ি ফিরিয়ে নিতে অস্বীকার পরিবারের

করোনায় ছেলের মৃত্যু, ৯৩-র  বৃদ্ধা মা সেরে উঠলেও তাঁকে বাড়ি ফিরিয়ে নিতে অস্বীকার পরিবারের
Photo- Representative

করোনা ভাইরাস আবহে মর্মান্তিক ঘটনা এল সামনে

  • Share this:

#হায়দরাবাদ: মর্মান্তিক ঘটনা ৷ করোনা আবহে একাধিক এমন ঘটনা সামনে আসছে যা মনকে দুঃসহ যন্ত্রণায় ঠেলে দিচ্ছে ৷ ফের এরকম ঘটনা সামনে এল ৷ হায়দরাবাদের গান্ধীনগর হাসপাতালে ৯৩ বছরের মহিলা করোনাকে হারিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছিলেন ৷ কিন্তু তারপরেও তাঁর বাড়ির লোক তাঁকে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যেতে রাজি হচ্ছিলেন না ৷

আসলে বৃদ্ধা সেরে উঠলেও বাড়ি ফেরার পর তাঁকে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হত ৷ বিভিন্ন রাজ্যে করোনা মোকাবিলায় বিভিন্ন নিয়ম পালন করা আবশ্যিক করে দিয়েছে ৷ এই অবস্থায় হাসপাতাল করোনামুক্ত রোগীদেরও বাড়ি ফিরে যাওয়ার পর ১৪ দিনের জন্য হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দিয়েছে ৷ করোনা টেস্ট কারওর পজিটিভ হলেই রোগীদের ভর্তি করা হয় হাসপাতালে ৷ হাসপাতালের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে রোগীরা সেরে যাওয়ার পরে আর করোনা টেস্ট হয় না৷ তাই তারা সতর্কতাবশত তাদের কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দেন ৷  এদিকে এই বৃদ্ধামহিলার ক্ষেত্রেও সেই একই বিষয় হয়েছিল ৷ কিন্তু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ দ্বিতীয়বার টেস্ট করার জন্য তৈরি ছিল না ৷

আরও পড়ুন - ‘ ওঁরা খুব গরীব ছিল, কিন্তু মাথা উচু করে বাঁচত’ -‘শহীদ’ রাজেশের জন্যে মাথা উঁচু বন্ধু ফজলুর

এদিকে এই বৃদ্ধার পরিবারের ছেলে ও দুই নাতিও করোনা আক্রান্ত হয়েছিল ৷ হাসপাতালেই করোনা আক্রান্ত ছেলে মারা যায় ৷ দুই নাতি অবশ্য এই অবস্থায় সেরে গিয়ে কোয়ারেন্টাইনে আছেন ৷

আরও পড়ুন - ১ জুলাই থেকে ব্যাঙ্কের নিয়মে আমূল বদল, না জেনে রাখলে গ্রাহকদের পকেটে লাগবে বড় ধাক্কা

এদিকে কোনওভাবেই বাড়ির লোক বৃদ্ধাকে দ্বিতীয়বার করোনা টেস্ট না করিয়ে বাড়ি নিয়ে যেতে না চাওয়ায় অবশেষে হাসপাতাল আবার করোনা টেস্ট করানো হয় ৷ করোনা ভাইরাস আবহে একের পর এক এমন ঘটনা সামনে আসছে যেখানে ভয়ের মাত্রা এতটাই বেশি হচ্ছে যার জেরে সাধারণ মানুষ নিজেদের কর্তব্য থেকেও পিছিয়ে আসছে ৷ এইভাবে বৃদ্ধাকে বাড়ি না নিয়ে যেতে চাওয়ার পদ্ধতি সেই ভয়েরই প্রকাশ ৷

.

Published by: Debalina Datta
First published: June 24, 2020, 3:27 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर