করোনা ভাইরাস

corona virus btn
corona virus btn
Loading

ফের এক আক্রান্তের মৃত্যু! ৭২ ঘন্টায় শিলিগুড়িতে করোনা আক্রান্ত ৯১ জন! 

ফের এক আক্রান্তের মৃত্যু! ৭২ ঘন্টায় শিলিগুড়িতে করোনা আক্রান্ত ৯১ জন! 

রোজই নতুন নতুন করে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে বিভিন্ন এলাকায়

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: ফের এক আক্রান্তের মৃত্যু শিলিগুড়িতে! উত্তরবঙ্গ মেডিকেলে মৃত্যু হয়েছে তাঁর। রাতে রিপোর্ট পজিটিভ আসে। কিছুতেই আক্রান্তদের মৃত্যু আটকানো যাচ্ছে না। প্রতিদিনই মৃত্যু হচ্ছে শহর ও লাগোয়া এলাকায়। মৃতের বাড়ি শিলিগুড়ি লাগোয়া ভক্তিনগরে। এনিয়ে শিলিগুড়িতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ২২! যা যথেষ্ট উদ্বেগের! গত ২৪ ঘন্টায় আক্রান্তের সংখ্যার গ্রাফের ছবিও খুব একটা পরিবর্তন হয়নি। নতুন করে আজ আক্রান্ত হয়েছেন ২৭ জন! এর মধ্যে পুর এলাকাতেই আক্রান্ত ২৬! বাকি একজন মাটিগাড়ার বাসিন্দা।

অর্থাৎ গত ৭২ ঘন্টায় আক্রান্ত হয়েছেন যথাক্রমে ৩৩, ৩১ এবং ২৭ জন। সবমিলিয়ে তিন দিনে ৯১ জন! আজ নতুন করে সবচাইতে বেশী আক্রান্ত হয়েছেন ৪ নং ওয়ার্ডে। আক্রান্তের সংখ্যা ৬ জন। ৯ নং ওয়ার্ডে ৫ জনের লালা রসের রিপোর্ট পজিটিভ এসছে। ১৪ নং ওয়ার্ডে ৩ জন নতুন করে আক্রান্ত। এছাড়া ১ জন করে আক্রান্ত বাকি ৯ ওয়ার্ডে। উত্তরবঙ্গ মেডিকেলে আক্রান্ত ৪ জন। এদিকে শিলিগুড়ি পুরসভার প্রশাসক মণ্ডলীর চেয়ারম্যান অশোক ভট্টাচার্যের সোয়াবের নমুনা রিপোর্ট নেগেটিভ আসায় আজ তাঁকে আইসিইউ থেকে কেবিনে শিফট করা হয়েছে। দ্রুত তাঁকে ছুটি দেওয়া হবে। তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় মুখ্যমন্ত্রী সহ রাজ্য কেবিনেটের অন্য মন্ত্রী, বিরোধী দলের নেতাদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন। হাসপাতালের চিকিৎসকদেরও প্রশংসা করেছেন।

শুক্রবার করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে জিতেছেন ৩২ জন। সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন। আপাতত ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন তাঁরা। যোদ্ধাদের হাতে ফুল তুলে দেওয়া হয়। সেই সঙ্গে করতালির মধ্য দিয়ে অভিবাদন জানানো হয়। এই মূহূর্তে শিলিগুড়ির দুটি কোভিড হাসপাতাল, সেফ হোম, বেসরকারি হাসপাতাল এবং হোম আইশোলেশন মিলিয়ে চিকিৎসাধীন ১২৭ জন করোনা আক্রান্ত। এক প্রেস বিবৃতিতে জানিয়েছেন দার্জিলিংয়ের জেলাশাসক এস পুন্নমবালাম। এর মধ্যে দুই কোভিড স্পেশাল হাসপাতালে ৯৮ জন ভর্তি রয়েছেন। সেফ হোমে ৮ জন এবং হোম আইশোলেশনে ৬ জন চিকিৎসাধীন। বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি ১৫ জন আক্রান্ত।

Partha Sarkar

Published by: Debalina Datta
First published: July 4, 2020, 12:35 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर