Covid Horror: হাসপাতালে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী বৃদ্ধ করোনা রোগী!

প্রতীকী ছবি।

পুলিশ সূত্রে খবর, ৭০ বছরের এক বৃদ্ধ করোনা আক্রান্ত হাসপাতালের বিশেষ বিভাগে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী (Suicide in Hospital) হয়েছেন।

  • Share this:

    #কর্নাটক: কর্নাটকের হাভেরিতে মর্মান্তিক ঘটনার শিকার এক করোনা রোগী (Covid-19 Positive)। পুলিশ সূত্রে খবর, ৭০ বছরের এক বৃদ্ধ করোনা আক্রান্ত হাসপাতালের বিশেষ বিভাগে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী (Suicide in Hospital) হয়েছেন। হাভেরির জেলা হাসপাতালে ঘটেছে এই ঘটনা। রেনেবেন্নারু এলাকার লামানি উপজাতির ওই বৃদ্ধ গত ৩ মে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন। তারপরেই তাঁকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল।

    পরিস্থিতি গুরুতর হওয়ায় কয়েকদিন আগেই তাঁকে হাভেরির এই জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। গত ৫ মে থেকে এই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন ওই বৃদ্ধ। শুক্রবার ওয়ার্ডেই দরজার কাছে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন বৃদ্ধ। হাসপাতালে লাগানো সিসিটিভি ফুটেজে ধরা পড়েছে, হাসপাতালের ওই ওয়ার্ডে প্রত্যেক রোগী ঘুমিয়ে পড়ার পর ওই বৃদ্ধ গলায় ফাঁস লাগান এবং মারা যান।

    হাসপাতাল সূত্রে খবর, ওই বৃদ্ধ রোগীর শরীরে সেই অর্থে কোনও জটিলতা দেখা দেয়নি। চিকিৎসায় ভালোই সাড়া দিচ্ছিলেন তিনি। তবে প্রাথমিক ভাবে মনে করা হচ্ছে, মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন তিনি। কোনও ভাবে নিজেকে শেষ করে দিতে চেয়েছিলেন ওই বৃদ্ধ। এবং শেষ পর্যন্ত সেই চরম পথই বেছে নেন তিনি। এই সপ্তাহেই মধ্যপ্রদেশের ভোপালেও একই ঘটনা দেখা গিয়েছিল। ৫০ বছরের এক করোনা রোগী হাসপাতালে আত্মহত্যা করেছিলেন।

    সেহোরে জেলার রেহতির বাসিন্দা ছিলেন ওই ব্যক্তি। হাসপাতালের ৭ তলা থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছিলেন তিনি। তিনিও সেই হাসপাতালে কয়েকদিন আগেই করোনা আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছিলেন। তিনিও মানসিক অবসাদেই ভুগছিলেন বলে প্রাথমিক অনুমান পুলিশের।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published: