corona virus btn
corona virus btn
Loading

বর্ধমানের করোনা হাসপাতালে সিসিইউতে রয়েছেন ৭ জন, অক্সিজেন সাপোর্টে আরও ৮

বর্ধমানের করোনা হাসপাতালে সিসিইউতে রয়েছেন ৭ জন, অক্সিজেন সাপোর্টে আরও ৮

বর্ধমান শহর লাগোয়া গাঙপুরে দুই নম্বর জাতীয় সড়কের ধারে ক্যামরি বেসরকারি হাসপাতালকে নিয়ে তা কোভিড-19 হাসপাতাল হিসেবে ব্যবহার করছে জেলা প্রশাসন।

  • Share this:

#বর্ধমান: পূর্ব বর্ধমানের  করোনা হাসপাতালে এখনও পর্যন্ত মোট ২০২ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন। বর্ধমান শহর লাগোয়া গাঙপুরে দুই নম্বর জাতীয় সড়কের ধারে ক্যামরি বেসরকারি হাসপাতালকে নিয়ে তা কোভিড-19 হাসপাতাল হিসেবে ব্যবহার করছে জেলা প্রশাসন। ৩ এপ্রিল থেকে করোনার উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হওয়া রোগীদের চিকিৎসা শুরু হয় সেই হাসপাতালে। সেই করোনা হাসপাতালে এখন কতগুলি রোগী রয়েছেন জানেন কি?

স্বাস্থ্য দফতরের দেওয়া তথ্যে জানা গিয়েছে, এখন বর্ধমানের এই করোনা হাসপাতালে ৪৪ জন রোগী রয়েছেন। জ্বর, কাশি নিয়ে ভর্তি হয়েছিলেন তাঁরা।  বাকিরা চিকিৎসার পর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গিয়েছেন। তাঁদের আরও ১৪ দিন হোম,কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। তাঁদের নমুনায় করোনার সংক্রমণ মেলেনি। এখন পর্যন্ত এই হাসপাতালের দু’জনের নমুনায় করোনার সংক্রমণ ধরা পড়েছে। তাঁরা দু’জনই খন্ডঘোষের বাদুলিয়া এলাকার বাসিন্দা।

গত ২৪ ঘণ্টায় বর্ধমানের এই করোনা হাসপাতাল থেকে ১৫ জন রোগীকে বাড়ি পাঠানো হয়েছে। তবে গত ২৪ ঘণ্টায় এই হাসপাতালে  আরও এক রোগীর মৃত্যু হয়েছে। তাঁর মৃত্যুর কারণ খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য দফতর। মৃতের নমুনা করোনা পরীক্ষার জন্য কলকাতায় পাঠানো হয়েছে।  এই করোনা হাসপাতলের  ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটের রয়েছেন এখন সাত জন রয়েছেন। এছাড়াও শ্বাসকষ্ট দেখা দেওয়ায় অক্সিজেন সাপোর্টে রয়েছেন আরও ৮ জন অসুস্থ।

জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, চিকিৎসা পরিষেবা নিয়ে এখনই উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই। ক্যামরির পাশাপাশি নবাবহাটেও একটি বেসরকারি হাসপাতাল করোনা হাসপাতাল হিসেবে চিহ্নিত করে রাখা হয়েছে। ক্যামরি করোনা হাসপাতালে রোগী ভর্তি হয়ে গেলে ওই হাসপাতালে রোগী ভর্তি শুরু হবে। এছাড়াও আরও বেশ কয়েকটি বেসরকারি হাসপাতাল ও নার্সিংহোমকে আলাদা আইসোলেশন ওয়ার্ড তৈরি রাখতে বলা হয়েছে। কয়েক দিনের মধ্যে বর্ধমান মেডিকেলে করোনার জন্য নমুনা পরীক্ষা শুরু হয়ে যাবে। তখন করোনার উপসর্গ থাকা পুরুষ মহিলাদের দ্রুত পরীক্ষা করা যাবে বলে আশা করা হচ্ছে।

শরদিন্দু ঘোষ

First published: April 30, 2020, 1:41 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर