corona virus btn
corona virus btn
Loading

বাড়ছে উদ্বেগ! পূর্ব বর্ধমানে নতুন করে করোনা আক্রান্ত ৭ জন

বাড়ছে উদ্বেগ! পূর্ব বর্ধমানে নতুন করে করোনা আক্রান্ত ৭ জন

এই নিয়ে জেলায় মোট ১৩৯ জন করোনা আক্রান্ত হলেন। আক্রান্তদের বেশিরভাগই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরলেও প্রতিদিনই আক্রান্তের হদিশ মেলায় উদ্বিগ্ন জেলার বাসিন্দারা।

  • Share this:

#বর্ধমান: পূর্ব বর্ধমান জেলায় নতুন করে সাত জন করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলল। এই নিয়ে জেলায় মোট ১৩৯ জন করোনা আক্রান্ত হলেন। আক্রান্তদের বেশিরভাগই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরলেও প্রতিদিনই আক্রান্তের হদিশ মেলায় উদ্বিগ্ন জেলার বাসিন্দারা। পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন জানিয়েছেন, মানুষের সুবিধার জন্য দোকানপাট বাজারহাট বা বাস চলাচল শুরু হলেও সকলকেই সাবধানে থাকতে হবে। মুখে মাস্ক লাগানো অভ্যাসে পরিণত করতে হবে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই এখন চলাচল করা জরুরি।

নতুন করে আক্রান্ত সাত জনের মধ্যে চারজনই আউসগ্রাম এক ব্লকের জয়কৃষ্ণ গ্রামের বাসিন্দা। তাদের মধ্যে এক দম্পতিও রয়েছেন। তারা ভিন রাজ্য থেকে ফিরেছিলেন। চারজনই গ্রামের প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে ছিলেন। সেখান থেকে তাদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছিল। ওই কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে থাকা বাসিন্দাদের মধ্যে চারজনের রিপোর্ট পজিটিভ আশায় এলাকায় উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়ে। ওই কোয়ারেন্টাইন সেন্টারকেই কন্টেইনমেন্ট জোন হিসেবে ঘোষণা করেছে জেলা প্রশাসন।

ওই কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে ভিন রাজ্য থেকে আসা ২২ জন শ্রমিক ছিলেন। তাদের মধ্যে চারজনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। বাকিদের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। তবে চারজনের পজিটিভ রিপোর্ট আশায় বাকিদের ওপরও নজরদারি চালানো হচ্ছে।পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, আউসগ্রামের জয় কৃষ্ণপুরে আক্রান্ত চারজন বাইরে রাজ্য থেকে এসেছিলেন। যে সাত জন আক্রান্ত হয়েছেন তাদের মধ্যে ছ’জনই পরিযায়ী শ্রমিক।

এদিন পূর্ব বর্ধমানের ভাতারে সাত বছরের একটি শিশু করোনা আক্রান্ত হয়েছে। তার বাবা কলকাতার একটি বেসরকারি সংস্থায় নিরাপত্তারক্ষীর কাজ করেন। তিনি কিছুদিন অন্তর কলকাতা থেকে বাড়ি ফিরতেন। এলাকার বাসিন্দারা এ নিয়ে আপত্তি তোলায় তাদের পরিবারের সকলের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছিল। তার মধ্যে ওই শিশুর নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। এছাড়াও কালনা এক নম্বর ব্লক ও পূর্বস্থলী দুই নম্বর ব্লকের আরও দুজন করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলেছে। পূর্বস্থলীর আক্রান্ত যুবকের বাড়ি পারুলিয়ার লোহাচুর গ্রামে। সম্প্রতি তিনি দিল্লি থেকে ফিরেছিলেন। জেলা স্বাস্থ্য দফতর জানিয়েছে, আক্রান্ত প্রত্যেককেই দুর্গাপুরে হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে।

Saradindu Ghosh

Published by: Elina Datta
First published: June 16, 2020, 9:18 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर