corona virus btn
corona virus btn
Loading

শিলিগুড়িতে একদিনে আক্রান্ত ৩৮ জন! বাড়ছে উদ্বেগ

শিলিগুড়িতে একদিনে আক্রান্ত ৩৮ জন! বাড়ছে উদ্বেগ
উত্তরবঙ্গে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা।

আজ নতুন করে আক্রান্তের গ্রাফ ঊর্ধমুখী। গত কয়েক দিন আক্রান্তের সংখ্যা কমেছিল। আজ সংখ্যা বাড়ায় বেড়েছে উদ্বেগও।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: ফের এক করোনা আক্রান্তের মৃত্যু হল শিলিগুড়িতে। মৃত মহিলা নকশালবাড়ির বাসিন্দা। গতকালই করোনার উপসর্গ নিয়ে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি ভর্তি হন। সেখানেই তাঁর মৃত্যু হয়। লালারসের নমুনা পাঠানো হয় ল্যাবে। রাতে রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এ নিয়ে শিলিগুড়িতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১৬!

এ দিন শিলিগুড়ির কাওয়াখালির কোভিড হাসপাতালে এক আক্রান্তেরও মৃত্যু হয়। মৃত ব্যক্তি জলপাইগুড়ির বাসিন্দা। এ দিকে আজ নতুন করে আক্রান্তের গ্রাফ ঊর্ধমুখী। গত কয়েক দিন আক্রান্তের সংখ্যা কমেছিল। আজ সংখ্যা বাড়ায় বেড়েছে উদ্বেগও। গত ২৪ ঘন্টায় শিলিগুড়িতে নতুন করে ৩৮ জনের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসছে।

এর মধ্যে পুর এলাকায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩৪! আক্রান্তের গ্রাফে শীর্ষে থাকা ৪৬ নং ওয়ার্ডে আজ নতুন করে ৮ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসছে। এই ওয়ার্ডে আক্রান্তের সংখ্যা ৬০ ছাড়িয়ে গিয়েছে। এ দিন সংযোজিত ৩৬ নং ওয়ার্ডে নতুন করে ৬ আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে। ২ জন আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে ১০, ১৪, ১৭, ২২ এবং ২৮ নং ওয়ার্ডে। আক্রান্তের তালিকায় ১৭ নং ওয়ার্ডে মৃত ব্যক্তির স্ত্রী ও মেয়েও রয়েছেন। আজ সেখানে যান রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব।

পরিবারের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি। তবে আজ ১৮ নং ওয়ার্ডে নতুন করে কেউ আক্রান্ত হননি। অন্যদিকে বাকি ৪ জনের মধ্যে মাটিগাড়ায় আক্রান্তের সংখ্যা ২। নকশালবাড়িতেও মিলেছে ২ আক্রান্তের খোঁজ। মিরিক পাহাড়ে ৯ জন আক্রান্ত হয়েছে বলে অসমর্থিত সূত্রে জানা গিয়েছে।

যদিও দার্জিলিংয়ের জেলাশাসক এস পুন্নমবালাম জানান, তাঁর কাছে আসা সরকারি রিপোর্টে এর উল্লেখ নেই। এ দিকে শিলিগুড়ি পুরসভার প্রশাসক মণ্ডলীর চেয়ারম্যান অশোক ভট্টাচার্যের শারিরীক অবস্থার উন্নতি হয়েছে। অক্সিজেন নেওয়ার পরিমাণও কমে এসছে। স্বাভাবিক খাবার খেয়েছেন। কথাবার্তাও স্বাভাবিক প্রশাসক মণ্ডলীর সদস্য মুকুল সেনগুপ্তও দ্রুত সুস্থ হচ্ছেন। তার দ্বিতীয়বারের রিপোর্ট নেগেটিভ এসছে। বর্তমানে প্রধাননগরের একটি বেসরকারি হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন।

Published by: Arka Deb
First published: June 28, 2020, 11:33 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर