লকডাউনে কৌশানীতে আটক ৩৫ বাঙালি পর্যটক

সোমবার, ২৩ তারিখ ফেরার কথা ছিল। কিন্তু তার মধ্যেই যে দেশের পরিস্থিতি এমন আমূল পাল্টে যাবে, তা বুঝতে পারেননি ওঁরা।

সোমবার, ২৩ তারিখ ফেরার কথা ছিল। কিন্তু তার মধ্যেই যে দেশের পরিস্থিতি এমন আমূল পাল্টে যাবে, তা বুঝতে পারেননি ওঁরা।

  • Share this:

#কলকাতা: লকডাউনে কৌশানীতে আটকে পড়েছেন ৩৫জন বাঙালি পর্যটক। তারমধ্যে বেশিরভাগই বয়স্ক। কত দিন এ ভাবে থাকতে হবে, কী খাবেন, ওষুধই বা মিলবে কোথা থেকে, তাই চিন্তায় পড়ে গিয়েছেন তাঁরা এবং তাঁদের বাড়ির লোকজন। ১৮ তারিখ কলকাতা থেকে রওনা হয়েছিলেন ৩৫ জনের ওই দলটি। সোমবার, ২৩ তারিখ ফেরার কথা ছিল। কিন্তু তার মধ্যেই যে দেশের পরিস্থিতি এমন আমূল পাল্টে যাবে, তা বুঝতে পারেননি ওঁরা।

গিরীশ পার্কের বাসিন্দা সুমিত মুখোপাধ্যায়ের মা-বাবা, কাকা-কাকী, সবাই রয়েছেন ওই দলে। তাঁদের নিয়ে চিন্তায় ঘুম ছুটেছে সুমিতদের। তিনি বলেন, "যখন ওঁরা যাওয়ার পরিকল্পনা করেছিলেন, উত্তরাখণ্ডে, উত্তরপ্রদেশে কোনও সমস্যাই ছিল না। কিন্তু কয়েক দিনের মধ্যে পরিস্থিতিটাই পুরোপুরি পাল্টে গেল। রবিবার জনতা কার্ফু থাকায় দিল্লি থেকে ওঁদের ফেরার ফ্লাইট রিশিডিউল হয়ে সোমবার হয়। কিন্তু দিল্লিতে লকডাউন হয়ে যাওয়ায় সে দিনও আর আসা হয়নি। এর পর থেকে হোটেলেই আটকে রয়েছেন।"

সুমিতবাবু জানান, অনলাইনে ওষুধ কিনে অনেক বারই পাঠানোর চেষ্টা করেছেন। কিন্তু সফল হননি। এই অবস্থায় ৩৫ জন পর্যটকই বিপুল অসুবিধেয় পড়েছেন। তার মধ্যে দু'দিন আগে বৃষ্টি হওয়ায় আরও বিপদ বেড়েছে। কত দিন এই বিপদের মধ্যে কাটাতে হবে, তা ভেবেই এখন আকুল আটকে থাকা পর্যটকেরা।

Published by:Siddhartha Sarkar
First published: