করোনা ভাইরাস

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

চরম আতঙ্ক! করোনা আক্রান্ত শিশু-সহ একই পরিবারের ৩১ জন, ছিল না উপসর্গ

চরম আতঙ্ক! করোনা আক্রান্ত শিশু-সহ একই পরিবারের ৩১ জন, ছিল না উপসর্গ
করোনায় এবার এরাজ্যেও শুরু হচ্ছে পুল টেস্টিং৷ আইসিএমআর-এর পরামর্শ মেনে এবার পুল টেস্টিং করার জন্য বিজ্ঞপ্তি জারি করল রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর৷ PHOTO- FILE

ওই পরিবারেরই এক মহিলার মৃত্যু হয় গত ৮ এপ্রিল। পরে পরীক্ষা করে জানা যায় ওই মহিলা কোভিড-১৯ পজিটিভ ছিলেন। তাঁর পরিবারের সকল সদস্যের থেকে নেওয়া নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। শনিবার তাঁদের মধ্যে ৩১ জনের রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লিঃ করোনো আক্রান্ত হলেন দিল্লির জাহাঙ্গিরপুরীর একই পরিবারের ৩১ জন। স্বাস্থ্য দফতরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আক্রান্তদের সকলকে নারেলার সেল্ফ-আইসোলেশন সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।

জানা গিয়েছে ওই পরিবারেরই এক মহিলার মৃত্যু হয় গত ৮ এপ্রিল। পরে পরীক্ষা করে জানা যায় ওই মহিলা করোনা আক্রান্ত ছিলেন। এরপরেই ওই পরিবারের সকল সদস্যের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। শনিবার তাঁদের মধ্যে ৩১ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। দিল্লির এক উচ্চপদস্থ আধিকারিক জানিয়েছেন, "মৃত মহিলার সংস্পর্শে আসা ৬৪ জনেক চিহ্নিত করে তাঁদের নমুনা পরীক্ষা হয়েছিল। শুক্রবার মহিলার বর্ধিত পরিবারের ২৬ জনের শরীরে করোনার অস্তিত্ব মেলে। শনিবার আরও পাঁচজনের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। বাকি ৩৩ জনের শরীরে করোনার উপস্থিতি মেলেনি।" ওই পরিবার জাহাঙ্গিরপুরীর যে এলাকায় থাকে, সেটিকে গত ১০ এপ্রিল সংক্রামিত অঞ্চল হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। এমনকি সিল করে দেওয়া হয়েছে গোটা এলাকা।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী দিল্লিতে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৭০৭। মৃত্যু হয়েছে ৪২ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় দিল্লির আরও আটটি এলাকাকে সংক্রামিত এলাকা হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। নতুন এলাকাগুলির মধ্যে রয়েছে এ ব্লক, নিউ ফ্রেন্ডস কলোনি, ইজরায়েল ক্যাম্প, রং পুরি পাহাড়ি, ওবেরয় অ্যাপার্টমেন্ট, ই-৫১ ও ই-২১ স্ট্রিট, জি-১ ফ্লোর মানসরোবর গার্ডেন, বুদ্ধ নগর ইন্দ্রপুরি, শাস্ত্রী পার্ক, টি-৬০৬ স্ট্রিট-১৮ গৌতম পুরী, এ-৯৭,৯৮,৯৯, খাজরাবাদ। সব মিলিয়ে রাজধানীতে এখনও অবধি মোট ৭৬টি এলাকাকে সংক্রামিত এলাকা হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, করোনা ভাইরাস মোকাবিলার জন্য ভারত অনেক আগে থেকেই পদক্ষেপ নিয়েছে। ২৬শে মার্চ থেকে শুরু হওয়া ২১ দিনের লকডাউনের মেয়াদ বাড়িয়ে ৩ মে পর্যন্ত করা হয়েছে। এছাড়া যেই জায়গায় করোনা সংক্রমণ বেশি সেই জায়গাগুলিকে রেড জোন হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে। রেড জোনের আওতায় রয়েছে দেশের ১০৭ জেলা।

Published by: Shubhagata Dey
First published: April 19, 2020, 1:30 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर