করোনাকে হারালেন ইতালির ১০৩ বছরের বৃদ্ধা!‌ বলছেন, মনের জোর থাকলে সব পালাবে

আশঙ্কা করেছিলাম, এবারে বুঝি আর ওঁকে বাঁচানো গেল না। কিন্তু ক’‌দিন বিশ্রামের পর দেখি উনি নিজেই উঠে কাজকর্ম শুরু করে দিয়েছেন।

আশঙ্কা করেছিলাম, এবারে বুঝি আর ওঁকে বাঁচানো গেল না। কিন্তু ক’‌দিন বিশ্রামের পর দেখি উনি নিজেই উঠে কাজকর্ম শুরু করে দিয়েছেন।

  • Share this:

    #‌লেসোনা:‌ ইতালির মূল কেন্দ্র থেকে অনেকটা দূরে লেসোনা কমিউন। আর সেখানেই এত মৃত্যুর মাঝে বেঁচে থাকার লড়াইয়ে জয়ের এক আশ্চর্য ইতিহাস রচনা করেছেন আদা জানুসো। বয়স ১০৩ বছর। করোনায় আক্রান্ত হয়েও জীবনের পথে ফিরে এসেছেন তিনি। লড়াই করে হারিয়ে দিয়েছেন করোনাকে। আর যুদ্ধ জিতে বলছেন, মনের জোর থাকলে সবাই পালাবে। সব রোগ হার মানবে মানুষের কাছে।

    ইতালি ও ফ্রান্সের জনসংখ্যার একটা বড় অংশের বয়স বেশি। দেশগুলির গড় বয়সও অত্যাধিক। সেই কারণেই এই দেশগুলিতে মৃত্যুর হার এতটা বেশি বলে মনে করছেন চিকিৎসকরা। আর একথা তো প্রতিষ্ঠিত যে করোনা সাধারণতা একটু বেশি বয়সের মানুষদের সহজে আক্রমণ করে। কিন্তু সেই সব হিসাব উল্টে পাল্টে দিয়েছেন আদা জানুসো। তিনি একটি সংবাদমাধ্যমের করা ভিডিও কলে বলেছেন, ‘‌আমি ভাল আছি। টিভি দেখছি, খবরের কাগজ পড়ছি। বিশ্বাস, উৎসাহ আর মনের জোর আমাকে এই রোগের প্রকোপ থেকে বের করে এনেছে। তাই যারাই অসুস্থ হচ্ছেন, তাঁদের বলছি, মনের জোর হারাবেন না। সাবধানে থাকুন। নিজের ওপর বিশ্বাস রাখুন।’‌

    জানুসোর এই অবাক করা লড়াইয়ে চমকে গিয়েছেন চিকিৎসরাও। তাঁর পারিবারিক চিকিৎসক ৩৫ বছরের কার্লা ফার্নো মার্চেস জানিয়েছেন, ‘‌জানুসো ক’‌দিন আগে বলেছিলে, তাঁর সামান্য জ্বর হয়েছে। এক সপ্তাহ তিনি বিছানায় শুয়ে বিশ্রামও নিয়েছিলেন। আমরা চেষ্টা করেছিলাম ওঁর শরীরটা আর্দ্র করে রাখতে। উনি খাচ্ছিলেন না, চোখ বুজে শুয়েই ছিলেন। আশঙ্কা করেছিলাম, এবারে বুঝি আর ওঁকে বাঁচানো গেল না। কিন্তু ক’‌দিন বিশ্রামের পর দেখি উনি নিজেই উঠে কাজকর্ম শুরু করে দিয়েছেন। স্বাভাবিক ভাবে। যেন কিছুই হয়নি। আমরা তো দেখে অবাক হয়ে গিয়েছি।

    Published by:Uddalak Bhattacharya
    First published: