Football World Cup 2018

ঝাড়গ্রামের উন্নয়ন নিয়ে ক্ষুব্ধ মমতা, প্রশাসনিক বৈঠকের পর পদ থেকে সরলেন চূড়ামণি মাহাতো

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Oct 10, 2017 07:44 PM IST
ঝাড়গ্রামের উন্নয়ন নিয়ে ক্ষুব্ধ মমতা, প্রশাসনিক বৈঠকের পর পদ থেকে সরলেন চূড়ামণি মাহাতো
Mamata Banerjee
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Oct 10, 2017 07:44 PM IST

 #কলকাতা: জেলাগঠনের পর প্রথম ঝাড়গ্রাম সফরে গিয়ে উন্নয়ন নিয়ে তীব্র ক্ষোভপ্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী। পঞ্চায়েত ভোটের আগে ঝাড়গ্রামের উন্নয়নের ছবি মুখ্যমন্ত্রীকে খুশি করতে পারেনি। তাই তাঁর নিশানায় পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন সচিব থেকে জেলাশাসক, পুলিশ সুপার ও বিডিও-রা। বেনজির ধমকের মুখে পড়েছেন মন্ত্রী চুড়ামণি মাহাতো ও বিধায়ক সুকুমার হাঁসদা। দু’জনকে সামনে রেখে নিষ্ক্রিয় জনপ্রতিনিধিদের ময়দানে নামার বার্তা দিয়েছেন তিনি।

পাহাড়ে শান্তি ফিরেছে। কিন্তু, উন্নয়নের দৌড়ে কিছুটা পিছিয়ে পড়ছে নতুন জেলা ঝাড়গ্রাম। সে খবর পৌঁছেছিল নবান্নেও। শিকড় কতটা গভীরে, তা খতিয়ে দেখতে মঙ্গলবার ঝাড়গ্রামে প্রশাসনিক বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী। জেলায় একশো দিনের কাজ, সড়ক যোজনা-সহ একাধিক প্রকল্পের কাজ কতটা এগিয়েছে তা প্রশাসনিক কর্তাদের কাছে জানতে চান তিনি।

জেলাশাসকের উত্তর অবশ্য মুখ্যমন্ত্রীকে খুশি করতে পারেনি। তিনি বলেন, ‘ঝাড়গ্রামে ঠিকমতো কাজ হচ্ছে না ৷ কেন কাজ হচ্ছে না? কোথায় সমস্যা? জেলায় খারাপ পারফরম্যান্সের জন্যই আসতে হয়েছে ৷’

মুখ্যমন্ত্রীর ক্ষোভের মুখে পড়েন জেলাশাসক ও পুলিশকর্তারাও। বিডিও-দের ভূমিকাতেও অসন্তোষ প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী। পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন সচিবের ভূমিকাতেও ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী। জনপ্রতিনিধিদের মধ্যে সমন্বয়ের অভাব নিয়ে বিধায়ক সুকুমার হাঁসদাকে বেঁধেন মমতা।

প্রশাসনিক কর্তাদের সঙ্গে জনসংযোগের অভাব স্পষ্ট বুঝেছেন মু্খ্যমন্ত্রী। সেই রোগ দলীয় স্তরেও বাসা বেঁধেছে তাও অজানা নয় তাঁর। তা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর বেনজির ধমকের মুখে পড়েন মন্ত্রী চূড়ামণি মাহাতো।

জেলায় লোধা-সহ অন্যান্য অদিবাসী জনজাতির জীবনযাত্রার মানোন্নয়নের নির্দেশ দিয়েছেন মু্খমন্ত্রী। একইসঙ্গে এলাকায় অশান্তি যাতে মাথাচাড়া না দিতে পারে তা নিয়েও সতর্ক করেছেন প্রশাসনকে।

জেলার হাসপাতালগুলি থেকে কলকাতায় ঘনঘন রেফার বরদাস্ত নয় বলে বার্তা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। একইসঙ্গে, হাসপাতালগুলি পরিদর্শনের নির্দেশও দিয়েছেন মমতা। পাহাড়ের মতো, জঙ্গলমহলে উন্নয়নই যে পাখির চোখ সেই বার্তা স্পষ্ট করে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

First published: 07:44:25 PM Oct 10, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर