তিন তালাক অসাংবিধানিক, ঐতিহাসিক রায় সুপ্রিম কোর্টের

প্রধান বিচারপতি সহ পাঁচ সদস্যের সাংবিধানিক বেঞ্চ এদিন জানান, আগামী ছ’মাসের জন্য তিন তালাকে নিষেধাজ্ঞা ৷

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Aug 22, 2017 03:10 PM IST
তিন তালাক অসাংবিধানিক, ঐতিহাসিক রায় সুপ্রিম কোর্টের
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Aug 22, 2017 03:10 PM IST

#নয়াদিল্লি: ভারতে আর বৈধ নয় তিন তালাক। ঐতিহাসিক রায়ে জানাল সুপ্রিম কোর্টের সাংবিধানিক বেঞ্চ। আজ প্রধান বিচারপতি জে এস খেহরের বেঞ্চ জানিয়েছে, মুসলিম সমাজে প্রচলিত তাৎক্ষণিক তিন তালাক প্রথা অসাংবিধানিক। যদিও, এ নিয়ে ঐকমত্যে আসতে পারেনি ওই বেঞ্চ। দুই বিচারপতি তিন তালাকের স্বপক্ষে মত দেন। তিন জন ছিলেন বিপক্ষে। শেষপর্যন্ত, সংখ্যাগরিষ্ঠের মতে, অসাংবিধানিক ঘোষিত হয় তালাক-এ-বিদাত।

মুসলিম সমাজের তিন তালাক প্রথা নিয়ে চলা যাবতীয় বিতর্কে এবার ইতি টেনে দিল সুপ্রিম কোর্ট। দীর্ঘ আইনি লড়াইয়ের পর, মঙ্গলবার শীর্ষ আদালত জানাল,

- তালাক-এ-বিদাত বা তিন তালাক প্রথা বেআইনি ও অসাংবিধানিক

- ওই প্রথা সংবিধান বিরোধী

- এবার থেকে বাতিল ওই প্রথা

গত ১১ মে থেকে শুরু হয় শুনানি পর্ব। টানা ছ’দিন শুনানি চলে। মঙ্গলবারও, পাঁচ বিচারপতির মধ্যে চলে ম্যারাথন আইনি যুদ্ধ। প্রধান বিচারপতি জে এস খেহর ও আরেক বিচারপতি আবদুল নাজির তিন তালাকের পক্ষে সওয়াল করেন। তাঁদের যুক্তি, ইসলামে ওই প্রথার উল্লেখ রয়েছে। কিন্তু, বাকি তিন বিচারপতি বিচারপতি রোহিনটন নরিম্যান, উদয় ললিত ও জোসেফ কুরিয়েন ওই প্রথা অসাংবিধানিক বলে জানান। শেষপর্যন্ত, সংখ্যাগরিষ্ঠতার বিচারে হেরে যায় খেহর ও নাজিরের মত।

তিন তালাক প্রথায় সুপ্রিম কোর্টের হস্তক্ষেপ ঠাকানোর জন্য কম চেষ্টা করেনি মুসলিম পার্সনাল ল বোর্ড। কিন্তু, শেষরক্ষা হয়নি। পরবর্তী পথ খুঁজতে আগামী ১০ সেপ্টেম্বর বৈঠকে বসছে তারা।

triple-talaq

গত ১১ মে থেকে শুরু হয় শুনানি পর্ব। টানা ছ’দিন শুনানি চলে। মঙ্গলবারও, পাঁচ বিচারপতির মধ্যে চলে ম্যারাথন আইনি যুদ্ধ। প্রধান বিচারপতি জে এস খেহর ও আরেক বিচারপতি আবদুল নাজির তিন তালাকের পক্ষে সওয়াল করেন। তাঁদের যুক্তি, ইসলামে ওই প্রথার উল্লেখ রয়েছে। কিন্তু, বাকি তিন বিচারপতি বিচারপতি রোহিনটন নরিম্যান, উদয় ললিত ও জোসেফ কুরিয়েন ওই প্রথা অসাংবিধানিক বলে জানান। শেষপর্যন্ত, সংখ্যাগরিষ্ঠতার বিচারে হেরে যায় খেহর ও নাজিরের মত।

তিন তালাক প্রথায় সুপ্রিম কোর্টের হস্তক্ষেপ ঠাকানোর জন্য কম চেষ্টা করেনি মুসলিম পার্সনাল ল বোর্ড। কিন্তু, শেষরক্ষা হয়নি। পরবর্তী পথ খুঁজতে আগামী ১০ সেপ্টেম্বর বৈঠকে বসছে তারা।

First published: 10:56:12 AM Aug 22, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर