হাসপাতাল থেকেই হারিয়েছিল নবজাতক, মায়ের কোলে ফিরল ৩ বছর পর !

হাসপাতাল থেকেই হারিয়েছিল নবজাতক, মায়ের কোলে ফিরল ৩ বছর পর !
  • Share this:

#মালদাহ: প্রায় তিনবছর আগে চুরি যাওয়া শিশুর সন্ধান মিলল দক্ষিণ দিনাজপুরের তপন এলাকা থেকে। দজুহাজার ষোলোয় মালদহ মেডিক্যাল হাসপাতাল থেকে চুরি হয়েছিল শিশুটি। ঘটনায় গ্রেফতার এক মহিলা। এদিকে, হারানো কন্যাকে ফিরে পেয়ে বাবা খুশি হলেও, পরিবারের কাউেকেই চিনতে পারছে না শিশুটি। তবে বারবার এই ঘটনায় প্রশ্নে মালদহ হাসপাতালের শিশু নিরাপত্তা। মালদহ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে এক কন্যা সন্তানের জন্ম দেন ধৃমাদিঘির বাসিন্দা সোনামুনি কিসকু। তবে, মহিলা আশ্ঙ্কাজনক থাকায় মা ও শিশুকে রাখা হয়েছিল আলাদা কেবিনে। তিনদিন পর সোনামুনিকে ছুটি দেওয়া হলেও সন্ধান মেলেনি তাঁর সন্তানের। তখনই ইংরেজ বাজার থানার দ্বারস্থ হন হারানো শিশুর বাবা ও মা। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে হবিবপুরের কান্তুরকার এলাকার শেফালি রবিদাসের কাছে রয়েছে শিশুটি। তবে তাকে পাকাড়াও করতে গেলেই বারবার হাতছাড়া হয় শেফালি।

আরও পড়ুনমাঠেই পোড়ানো হচ্ছে ফসলের অবশিষ্ট, ছড়াচ্ছে দূষণ, ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে গোটা দক্ষিণবঙ্গ

অবশেষে গ্রামের মোড়লের সাহায্যে তিন বছর পর দক্ষিণ দিনাজপুরের তপন থেকে গ্রেফতার করা হয় তাকে। পুলিশের জেরায় শিশু চুরির কথা স্বীকার করেছে সে। এমনকি পঁচিশ হাজার টাকার বিনিময়ে হাসপাতালের এক আয়ার কাছ থেকে এক হাতুড়ে চিকিৎসকের সাহায্যে সে শিশুটিকে নিয়েছে বলে দাবি। হারিয়ে যাওয়া কন্যা সন্তানকে খুঁ পেয়ে খুশি বাবা। তবে পরিবারের কাউকেই নিজের বলে মানতে পারছে না শিশুটি। বারাবার শিশু চুরির ঘটনায় অস্বস্তিতে মালদহ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তবে কেউ জড়িত থাকলে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস সুপারের। দিন সাতেক আগে, এই হাসপাতালের বার্ন ওয়ার্ড থেকে চুরি যায় এক শিশু। এখনও তাঁর খোঁজে তদন্তে পুলিশ। তবে, মালদহ মেডিক্যাল থেকে বারবার এই শিশু চুরির ঘটনায় প্রশ্নে হাসপাতালের শিশু নিরাপত্তা।

First published: January 3, 2019, 5:13 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर